ঢাকা ০৫:১১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছেন অ্যাডভোকেট জেসমিন

অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা। সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি। এবার তিনি সংরক্ষিত মহিলা আসনে (চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনোয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

Model Hospital

মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র দাখিলের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, বিগত আন্দোলনগুলোতে বিএনপি-জামায়াতের অত্যাচার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত আইনজীবীদের সংগঠিত করে প্রতিরোধ-প্রতিবাদ চালিয়ে গেছি। ওয়ান ইলেভেনের সময় এডভোকেট ইউসুফ হেসেন হুমায়ুনের সঙ্গে বিভিন্ন মামলায় অংশ গ্রহণ করেছি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যাকে উপযুক্ত মনে করবেন, তাকেই মনোনয়ন দিবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনীত করলে আমি আইন প্রণয়ন, আইনের প্রয়োগ, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা এবং মানবাধিকার রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাবো। সব সময় আদালতে নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বিনামূল্য আইনসহায়তা প্রদান করছি, আগামীতেও করবো।

তিনি আরো বলেন, আমাকে মনোনয়ন দিলে অত্যন্ত সততার সাথে উন্নয়নের স্বপ্ন সারথী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একনিষ্ঠ কর্মী হিসাবে ২০৪১ মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে কথা নয় কাজ দিয়ে প্রমাণ করবো।

অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা ১৯৯৪ সনে কক্সবাজার জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। ১৯৯৮ সনে যুগ্ম সম্পাদক হন। ২০০০ সালে ঢাকায় চলে আসেন। আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সুপ্রীম কোর্ট শাখার সহ সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০১৭ সন থেকে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য। ২০২৩ সনে মহিলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক নির্বাচিত হন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এবং দ্বাদশ জাতীয় সংসদ সরাসরি নির্বাচনেও তিনি মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

রমজানের আগেই ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ দাবি নতুনধারার

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছেন অ্যাডভোকেট জেসমিন

আপডেট সময় : ০৮:১৬:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা। সুপ্রীম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি। এবার তিনি সংরক্ষিত মহিলা আসনে (চাঁদপুর-লক্ষ্মীপুর) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনোয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

Model Hospital

মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র দাখিলের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, বিগত আন্দোলনগুলোতে বিএনপি-জামায়াতের অত্যাচার আগ্রাসনের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত আইনজীবীদের সংগঠিত করে প্রতিরোধ-প্রতিবাদ চালিয়ে গেছি। ওয়ান ইলেভেনের সময় এডভোকেট ইউসুফ হেসেন হুমায়ুনের সঙ্গে বিভিন্ন মামলায় অংশ গ্রহণ করেছি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যাকে উপযুক্ত মনে করবেন, তাকেই মনোনয়ন দিবেন। জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে মনোনীত করলে আমি আইন প্রণয়ন, আইনের প্রয়োগ, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা এবং মানবাধিকার রক্ষায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করে যাবো। সব সময় আদালতে নির্যাতিত মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে বিনামূল্য আইনসহায়তা প্রদান করছি, আগামীতেও করবো।

তিনি আরো বলেন, আমাকে মনোনয়ন দিলে অত্যন্ত সততার সাথে উন্নয়নের স্বপ্ন সারথী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একনিষ্ঠ কর্মী হিসাবে ২০৪১ মিশন ও ভিশন বাস্তবায়নে কথা নয় কাজ দিয়ে প্রমাণ করবো।

অ্যাডভোকেট জেসমিন সুলতানা ১৯৯৪ সনে কক্সবাজার জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। ১৯৯৮ সনে যুগ্ম সম্পাদক হন। ২০০০ সালে ঢাকায় চলে আসেন। আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সুপ্রীম কোর্ট শাখার সহ সভাপতি নির্বাচিত হন। ২০১৭ সন থেকে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের সদস্য। ২০২৩ সনে মহিলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক নির্বাচিত হন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এবং দ্বাদশ জাতীয় সংসদ সরাসরি নির্বাচনেও তিনি মনোনয়ন চেয়েছিলেন।