ঢাকা ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

চাঁদপুর সদরের হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবদুল ছাত্তার রাঢ়ীকে কুপিয়ে পৌনে ২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী।

Model Hospital

এর আগে, গত বুধবার বিকেলে মধ্য গোবিন্দিয়ার রাস্তার সামনে তার ওপর হামলা হয়।

লিখিত অভিযোগে স্থানীয় বিল্লাল ছৈয়াল (২৭), আলী আকবর ছৈয়াল (৪০), ইউসুফ ছৈয়াল (৩৫), রহমান ছৈয়াল (৫৮) ও জাহাঙ্গীর শেখের (৩৮) নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

চিকিৎসাধীন মো. আবদুল ছাত্তার রাঢ়ী বলেন, মাদক বেচাবিক্রির প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে এবং এলাকায় আধিপত্য দেখাতেই আমার ওপর তারা হামলা চালিয়েছে। হত্যার উদ্দেশ্যে তারা আমার মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতে করে জখম করে। মাথায় ৬টি সেলাই দিয়েছেন চিকিৎসক। ওরা আমার চোখে ও নাকে মুখে ঘুষি মারে। আমার পাঞ্জাবির ডান পকেটে থাকা হরিণা ফেরিঘাটের টোল আদায়ের ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ন্যায় বিচারের প্রত্যাশায় থানায় লিখিতভাবে জানিয়েছি।

অভিযোগ প্রসঙ্গে ইউসুফ ছৈয়াল বলেন, আমরা শুধু তাদের আক্রমণ প্রতিহত করেছি। ছাত্তার রাঢ়ীর ছেলে মামুন ও সাদ্দাম মাদক সেবন এবং কারবারে জড়িত। এগুলো নিয়ে প্রতিবাদ করায় উনারা আমাদের বাড়ির নারী-পুরুষের ওপর দলবল নিয়ে হামলা চালিয়েছে। তাদের টাকা ছিনতাইয়ের কোনো প্রশ্নই ওঠে না।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার এসআই সেলিম উল্লাহ বলেন, আমি হাসপাতালে গিয়ে চেয়ারম্যানকে দেখে এসেছি। তার দেওয়া অভিযোগটি তদন্তাধীন রয়েছে।

ট্যাগস :

চাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ

আপডেট সময় : ১১:৪৮:২৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ এপ্রিল ২০২৪

চাঁদপুর সদরের হানারচর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আবদুল ছাত্তার রাঢ়ীকে কুপিয়ে পৌনে ২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী।

Model Hospital

এর আগে, গত বুধবার বিকেলে মধ্য গোবিন্দিয়ার রাস্তার সামনে তার ওপর হামলা হয়।

লিখিত অভিযোগে স্থানীয় বিল্লাল ছৈয়াল (২৭), আলী আকবর ছৈয়াল (৪০), ইউসুফ ছৈয়াল (৩৫), রহমান ছৈয়াল (৫৮) ও জাহাঙ্গীর শেখের (৩৮) নাম উল্লেখ করা হয়েছে।

চিকিৎসাধীন মো. আবদুল ছাত্তার রাঢ়ী বলেন, মাদক বেচাবিক্রির প্রতিবাদ করায় ক্ষিপ্ত হয়ে এবং এলাকায় আধিপত্য দেখাতেই আমার ওপর তারা হামলা চালিয়েছে। হত্যার উদ্দেশ্যে তারা আমার মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাতে করে জখম করে। মাথায় ৬টি সেলাই দিয়েছেন চিকিৎসক। ওরা আমার চোখে ও নাকে মুখে ঘুষি মারে। আমার পাঞ্জাবির ডান পকেটে থাকা হরিণা ফেরিঘাটের টোল আদায়ের ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ন্যায় বিচারের প্রত্যাশায় থানায় লিখিতভাবে জানিয়েছি।

অভিযোগ প্রসঙ্গে ইউসুফ ছৈয়াল বলেন, আমরা শুধু তাদের আক্রমণ প্রতিহত করেছি। ছাত্তার রাঢ়ীর ছেলে মামুন ও সাদ্দাম মাদক সেবন এবং কারবারে জড়িত। এগুলো নিয়ে প্রতিবাদ করায় উনারা আমাদের বাড়ির নারী-পুরুষের ওপর দলবল নিয়ে হামলা চালিয়েছে। তাদের টাকা ছিনতাইয়ের কোনো প্রশ্নই ওঠে না।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার এসআই সেলিম উল্লাহ বলেন, আমি হাসপাতালে গিয়ে চেয়ারম্যানকে দেখে এসেছি। তার দেওয়া অভিযোগটি তদন্তাধীন রয়েছে।