ঢাকা ০২:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাহতলী কামিল মাদরাসার নতুন ভবনে কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ

শাহতলী কামিল মাদরাস নির্মিত ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনে মাদরাসার কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহতলী কামিল মাদরাসায় মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপি’র সহযোগিতায় নির্মিত ও চাঁদপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীন ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনে মাদরাসার কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

১জানুয়ারী (শনিবার) সকাল ১০টায় মাদরাসা নব-নির্মিত একাডেমিক ভবনের হলরুমে মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

প্রধান অতিথি মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী বক্তব্যে বলেন, আজকে আমি প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপিকে। যার সহযোগিতায় এ ভবনটি পেয়েছি। আমি স্মরণ করছি যারা এ মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেছে তাদের। যারা সুন্দরভাবে এ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করেছে। আমরা আজকে নতুন ভবনে আমাদের মাদরাসার শ্রেনি কার্যক্রম শুরু করতে পেরেছি। এ ভবন করতে গিয়ে অনেকের সহযোগিতা পেয়েছি, আমি শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করছি তাদের। আমি শ্রদ্ধার সাথে আরও স্মরণ করছি মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মরহুম মাওলানা ফয়েজ হুজুরের প্রতি। ওনি সবসময় এ মাদরাসায় একটি ভবনের স্বপ্ন দেখেছিলেন। চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলায় অনেক মাদরাসা রয়েছে। প্রায় প্রতিটি মাদরাসায় ভবনের সংকট ছিল। তারমধ্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু আপা আমাদের এ মাদরাসায় ভবনটি চেয়েছে, তাই আমাদের এ ভবনটি হয়েছে। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু আপার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। ওনি শুধু এ মাদারাসায় ভবন দেয়নি, শাহতলী এলাকার সকল প্রতিষ্ঠানে ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা এ প্রতিষ্ঠানের নতুন ভবনে আজকে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পেরেছি, এজন্য শুকরিয়া। আমি শিক্ষক, এলাকাবাসি, যারা জমি দিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। সরকার ভবন নির্মান করার জন্য ফ্রেস জমি চায়। ফ্রেস জমি থাকলে সরকার ভবন করবে। এ অঞ্চলের মানুষ নিবেদিত ভাবে এ মাদরাসায় উন্নয়নে অবদান রেখেছেন। কৃতজ্ঞতা জানাই মৈশাদী ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান এর প্রতি, তিনি এখানে একটি গাইডওয়াল করে দিয়েছেন। এ ভবনের সুযোগ-সুবিধা অনেক ভালো। আজকের দিনটি মাদরাসার জন্য খুবই স্মরণীয় দিন।

তিনি আরো বলেন, আজকে সারা দেশে একযোগে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করা হচ্ছে। করোনার কারনে উৎসব মূখর ভাবে বই বিতরণ করা যাবেনা। ধাপে ধাপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই করতে হবে। আজকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্বে একযোগে প্রায় ৩৪কোটি বই বিতরণ করা হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তারই পেক্ষিতে শিক্ষামন্ত্রী’র সহযোগিতায় এলাকার প্রায় সকল প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন আওতায় এসেছে।

মাদরাসার ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ের সহকারি অধ্যাপক মো: কামাল উদ্দিন এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, শাহতলী জিলানী চিশতী কলেজের অধ্যক্ষ মো: হারুন-অর রশিদ, মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ইয়াছিন মিয়া ,মাদরাসা গভর্নিং বডির দাতা সদস্য হাফেজ জাকির হোসেন তপাদার, অভিভাবক সদস্য মো: আমির হোসেন গাজী, মাদরাসার প্রধান মুহাদ্দিস মাওলানা আখতার হোসেন, ২য় মুহাদ্দেস মাওলানা আব্দুল মান্নান, আরবী প্রভাষক মাওলানা এমদাদ উল্ল্যা, ইংরেজী প্রভাষক মোহাম্মদুল্লা, আরবী প্রভাষক মাওলানা মহিউদ্দিন, আরবী প্রভাষক মাওলানা হেলাল উদ্দিন, সিনিয়র মৌলভী মাওলানা মিজানুর রহমান, সহকারি শিক্ষক মাওলানা আব্দুল হালিম গাজী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মাদরাসার সিনিয়র মৌলভী হাফেজ জহিরুল হক, বাংলা প্রভাষক মো: বেলায়েত হোসেন মিজি, সহকারি শিক্ষক মাওলানা বাহাউদ্দিন, সহকারি শিক্ষক হাবিবুর রহমান, সহকারি লাইব্রেরীয়ান মাওলানা আহসান হাবীব, সহকারি শিক্ষক আইসিটি আনিসুর রহমান, ইবতেদায়ী প্রধান শরীফ মো: মোস্তফা খান, ইবতেদায়ী শিক্ষক হাফেজ জাহাঙ্গীর, হিসাব রক্ষক মো: শরিফুর রহমান খান, অফিস সহকারি মো: রিয়াদ হোসাইন, অফিস সহকারি মো: শরীফ খানসহ অন্যান্যরা।

দোয়া অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বছরের বই বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী, মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইনসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠান শেষে নতুন ভবনের কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করা হয়। দোয়া, মিলাদ ও মুনাজাত পরিচালনা করেন মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, ১০ম শ্রেনির শিক্ষার্থী মো: হোসাইন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য রাখেন ও শিক্ষার্থীদের ছবক পাঠ করান মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন। তিনি বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর বিজয়ের গান গাইলেন সুনামগঞ্জের সাংবাদিক রাজু

শাহতলী কামিল মাদরাসার নতুন ভবনে কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদ

আপডেট সময় : ০১:৫১:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জানুয়ারী ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহতলী কামিল মাদরাসায় মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপি’র সহযোগিতায় নির্মিত ও চাঁদপুর শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীন ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনে মাদরাসার কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

১জানুয়ারী (শনিবার) সকাল ১০টায় মাদরাসা নব-নির্মিত একাডেমিক ভবনের হলরুমে মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী।

প্রধান অতিথি মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী বক্তব্যে বলেন, আজকে আমি প্রথমেই ধন্যবাদ জানাই মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি এমপিকে। যার সহযোগিতায় এ ভবনটি পেয়েছি। আমি স্মরণ করছি যারা এ মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেছে তাদের। যারা সুন্দরভাবে এ প্রতিষ্ঠানটি পরিচালনা করেছে। আমরা আজকে নতুন ভবনে আমাদের মাদরাসার শ্রেনি কার্যক্রম শুরু করতে পেরেছি। এ ভবন করতে গিয়ে অনেকের সহযোগিতা পেয়েছি, আমি শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করছি তাদের। আমি শ্রদ্ধার সাথে আরও স্মরণ করছি মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ মরহুম মাওলানা ফয়েজ হুজুরের প্রতি। ওনি সবসময় এ মাদরাসায় একটি ভবনের স্বপ্ন দেখেছিলেন। চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলায় অনেক মাদরাসা রয়েছে। প্রায় প্রতিটি মাদরাসায় ভবনের সংকট ছিল। তারমধ্যে শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু আপা আমাদের এ মাদরাসায় ভবনটি চেয়েছে, তাই আমাদের এ ভবনটি হয়েছে। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু আপার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। ওনি শুধু এ মাদারাসায় ভবন দেয়নি, শাহতলী এলাকার সকল প্রতিষ্ঠানে ৪তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা এ প্রতিষ্ঠানের নতুন ভবনে আজকে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পেরেছি, এজন্য শুকরিয়া। আমি শিক্ষক, এলাকাবাসি, যারা জমি দিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। সরকার ভবন নির্মান করার জন্য ফ্রেস জমি চায়। ফ্রেস জমি থাকলে সরকার ভবন করবে। এ অঞ্চলের মানুষ নিবেদিত ভাবে এ মাদরাসায় উন্নয়নে অবদান রেখেছেন। কৃতজ্ঞতা জানাই মৈশাদী ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান এর প্রতি, তিনি এখানে একটি গাইডওয়াল করে দিয়েছেন। এ ভবনের সুযোগ-সুবিধা অনেক ভালো। আজকের দিনটি মাদরাসার জন্য খুবই স্মরণীয় দিন।

তিনি আরো বলেন, আজকে সারা দেশে একযোগে শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণ করা হচ্ছে। করোনার কারনে উৎসব মূখর ভাবে বই বিতরণ করা যাবেনা। ধাপে ধাপে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বই করতে হবে। আজকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্বে একযোগে প্রায় ৩৪কোটি বই বিতরণ করা হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তারই পেক্ষিতে শিক্ষামন্ত্রী’র সহযোগিতায় এলাকার প্রায় সকল প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন আওতায় এসেছে।

মাদরাসার ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিষয়ের সহকারি অধ্যাপক মো: কামাল উদ্দিন এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, শাহতলী জিলানী চিশতী কলেজের অধ্যক্ষ মো: হারুন-অর রশিদ, মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ইয়াছিন মিয়া ,মাদরাসা গভর্নিং বডির দাতা সদস্য হাফেজ জাকির হোসেন তপাদার, অভিভাবক সদস্য মো: আমির হোসেন গাজী, মাদরাসার প্রধান মুহাদ্দিস মাওলানা আখতার হোসেন, ২য় মুহাদ্দেস মাওলানা আব্দুল মান্নান, আরবী প্রভাষক মাওলানা এমদাদ উল্ল্যা, ইংরেজী প্রভাষক মোহাম্মদুল্লা, আরবী প্রভাষক মাওলানা মহিউদ্দিন, আরবী প্রভাষক মাওলানা হেলাল উদ্দিন, সিনিয়র মৌলভী মাওলানা মিজানুর রহমান, সহকারি শিক্ষক মাওলানা আব্দুল হালিম গাজী।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, মাদরাসার সিনিয়র মৌলভী হাফেজ জহিরুল হক, বাংলা প্রভাষক মো: বেলায়েত হোসেন মিজি, সহকারি শিক্ষক মাওলানা বাহাউদ্দিন, সহকারি শিক্ষক হাবিবুর রহমান, সহকারি লাইব্রেরীয়ান মাওলানা আহসান হাবীব, সহকারি শিক্ষক আইসিটি আনিসুর রহমান, ইবতেদায়ী প্রধান শরীফ মো: মোস্তফা খান, ইবতেদায়ী শিক্ষক হাফেজ জাহাঙ্গীর, হিসাব রক্ষক মো: শরিফুর রহমান খান, অফিস সহকারি মো: রিয়াদ হোসাইন, অফিস সহকারি মো: শরীফ খানসহ অন্যান্যরা।

দোয়া অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বছরের বই বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মাদরাসা গভর্নিং বডির সহ-সভাপতি ও দৈনিক চাঁদপুর খবর পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও প্রকাশক সোহেল রুশদী, মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইনসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

অনুষ্ঠান শেষে নতুন ভবনের কার্যক্রম স্থানান্তর উপলক্ষে দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করা হয়। দোয়া, মিলাদ ও মুনাজাত পরিচালনা করেন মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন। অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত করেন, ১০ম শ্রেনির শিক্ষার্থী মো: হোসাইন।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য রাখেন ও শিক্ষার্থীদের ছবক পাঠ করান মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ বিলাল হোসাইন। তিনি বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।