ঢাকা ০৮:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জে অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তি সীমানা নির্ধারণে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদন

 হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি : হাজীগঞ্জে অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তির মধ্যে ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি দখলে নেওয়ার অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন দায়ের করেছেন এক ভুক্তভোগী। কিন্ত লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন সুরাহ্ হয়নি। উপজেলার ৮নং হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের বলিয়া গ্রামের আকুব আলীর ছেলে ও হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আ. মতিন গত বছরের ২৭ এপ্রিল অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তি সীমানা পরিমাপের জন্য চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেন।

Model Hospital
লিখিত আবেদন সূত্রে জানা যায়, ৮১নং টোরাগড় মৌজার বিএস-১১৯ খতিয়ানের ৬০ শতাংশ সম্পত্তি থেকে ৯ শতাংশ সম্পত্তি  অধিগ্রহণ করেন। জারি নং-১১১ (৩০) নোটিশ এর মূলে এল.এ কেইস নং-০৯/২০১৮-১৯ইং ও অধিগ্রহণ সংক্রান্ত চেক নং-০৩১২২৫। পরে আ. মতিন থেকে নেওয়া অধিগ্রহনের সম্পত্তি উপর বালু দিয়ে ভরাট করেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ভরাট করতে গিয়ে তার বাদ বাকী সম্পত্তির প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি দখল হয়ে যায়। পরে তিনি নিজে সার্ভেয়ার দিয়ে সম্পত্তি পরিমাপ করেন। এতেও তিনি দেখতে পান ওই অধিগ্রহণের মধ্যে তার সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি চলে গেছে। তিনি কোন উপায়ন্ত না পেয়ে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এর নিকট অধিগ্রহনের ৯ শতাংশ সম্পত্তি সঠিক ভাবে পরিমাপ করে নিতে একটি লিখিত আবেদন করেন। লিখিত আবেদনের প্রায় ১১ মাস পার হলেও কোন সুরাহ্ হয়নি। এতে হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আ. মতিন ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।
এ প্রসঙ্গে ব্যবসায়ী আ. মতিন বলেন, আমার মালিকনা ৬০ শতাংশ সম্পত্তি থেকে ৯ শতাংশ সম্পত্তি অধিগ্রহণ করে। কর্তৃপক্ষ কর্মযজ্ঞ করতে গিয়ে বাকী ৫১ শতাংশ সম্পত্তি থেকে প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি অধিগ্রহণের মধ্যে চলে যায়। তাই অধিগ্রহণের ৯ শতাংশ সম্পত্তি সঠিক ভাবে পরিমাপ করে নিতে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন করি। কিন্ত আমি আবেদন করেও কোন সুফল পায়নি। এ জন্য আমি জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ স্যারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

শাহরাস্তিতে নিজের পায়ুপথে ৬ ইঞ্চি ডাব প্রবেশ করিয়ে বিপাকে যুবক

হাজীগঞ্জে অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তি সীমানা নির্ধারণে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদন

আপডেট সময় : ০২:৫৬:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ মার্চ ২০২২

 হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি : হাজীগঞ্জে অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তির মধ্যে ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি দখলে নেওয়ার অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন দায়ের করেছেন এক ভুক্তভোগী। কিন্ত লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন সুরাহ্ হয়নি। উপজেলার ৮নং হাটিলা পূর্ব ইউনিয়নের বলিয়া গ্রামের আকুব আলীর ছেলে ও হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আ. মতিন গত বছরের ২৭ এপ্রিল অধিগ্রহণকৃত সম্পত্তি সীমানা পরিমাপের জন্য চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেন।

Model Hospital
লিখিত আবেদন সূত্রে জানা যায়, ৮১নং টোরাগড় মৌজার বিএস-১১৯ খতিয়ানের ৬০ শতাংশ সম্পত্তি থেকে ৯ শতাংশ সম্পত্তি  অধিগ্রহণ করেন। জারি নং-১১১ (৩০) নোটিশ এর মূলে এল.এ কেইস নং-০৯/২০১৮-১৯ইং ও অধিগ্রহণ সংক্রান্ত চেক নং-০৩১২২৫। পরে আ. মতিন থেকে নেওয়া অধিগ্রহনের সম্পত্তি উপর বালু দিয়ে ভরাট করেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ভরাট করতে গিয়ে তার বাদ বাকী সম্পত্তির প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি দখল হয়ে যায়। পরে তিনি নিজে সার্ভেয়ার দিয়ে সম্পত্তি পরিমাপ করেন। এতেও তিনি দেখতে পান ওই অধিগ্রহণের মধ্যে তার সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি চলে গেছে। তিনি কোন উপায়ন্ত না পেয়ে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ এর নিকট অধিগ্রহনের ৯ শতাংশ সম্পত্তি সঠিক ভাবে পরিমাপ করে নিতে একটি লিখিত আবেদন করেন। লিখিত আবেদনের প্রায় ১১ মাস পার হলেও কোন সুরাহ্ হয়নি। এতে হাজীগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী আ. মতিন ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন।
এ প্রসঙ্গে ব্যবসায়ী আ. মতিন বলেন, আমার মালিকনা ৬০ শতাংশ সম্পত্তি থেকে ৯ শতাংশ সম্পত্তি অধিগ্রহণ করে। কর্তৃপক্ষ কর্মযজ্ঞ করতে গিয়ে বাকী ৫১ শতাংশ সম্পত্তি থেকে প্রায় সোয়া ১ শতাংশ সম্পত্তি অধিগ্রহণের মধ্যে চলে যায়। তাই অধিগ্রহণের ৯ শতাংশ সম্পত্তি সঠিক ভাবে পরিমাপ করে নিতে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত আবেদন করি। কিন্ত আমি আবেদন করেও কোন সুফল পায়নি। এ জন্য আমি জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ স্যারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।