ঢাকা ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় পহেলা বৈশাখে মনসামুড়া ও কড়ইয়া বটতলায় পূজা ও মেলা অনুষ্ঠিত

মোঃ রাছেল : বেহুলা লক্ষিন্দরের স্মৃতি বিজরিত মনসা মুড়া ও কড়ইয়া বটতলায় ১লা বৈশাখ উপলক্ষে মেলা ও পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

শুক্রবার সকাল থেকে পালাখাল মডেল ইউনিয়নের ভূইয়ারা মনসা মুড়া প্রাঙ্গনে ভক্ত বৃন্দের পূজা অর্চনা, ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মনসা পূজা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় মনসা মূড়া এলাকায় আবহমান বাংলার লোকজ শিল্পের তৈরি পন্যসমৃদ্ধ স্টল মেলায় স্থান পায়। একই দিনে পৌরসভার কড়ইয়া বটতলা প্রাঙ্গনে ভক্ত বৃন্দের পূজা অর্চনা, ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শীতলা পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কচুয়া উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রাণধন দেব, সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তুষ পোদ্দার, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ফনী ভূষণ মজুমদার তাপু, বিকাশ সাহা, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মানিক ভৌমিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুজন পোদ্দার, মনসা মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রণয় চক্রবর্তী ও কড়ইয়া বটতলা কমিটির আহবায়ক মানিক মজুমদার সোহাগ প্রমূখ। পূজা অর্চনা করে পুরোহিত বিশ^জিৎ চক্রবর্তী ও প্রবীর চক্রবর্তী ।

উল্লেখ্য যে, কচুয়া উপজেলা এই দুইটি স্থানে পহেলা বৈশাখ আসলেই দুই তিন দিন আগ থেকেই দূর দূরান্ত থেকে মাটির তৈরির বিভিন্ন খেলনা পুতুল, মুখোশ সহ বিভিন্ন ধরনের স্টলের প্রসরা সাজিয়ে বসত। করোনা ও মহামারীর কারনে গত দু’বছর যাবৎ মেলার কার্যক্রম স্থগিত থাকায় হারিয়ে যেতে বসেছে বাংলার আবহমান সংস্কৃতি সকল ধর্মের মিলন মেলার স্থল মনসা মুড়া ও কড়ইয়ার বটতলার স্থান ।

কচুয়ার এই ঐতিহ্য কে ধরে রাখতে হলে এই দু’টি স্থানের সংস্কারের দাবি উঠেছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুর শহরে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়ালো অ্যাড. হুমায়ুন কবির সুমন

কচুয়ায় পহেলা বৈশাখে মনসামুড়া ও কড়ইয়া বটতলায় পূজা ও মেলা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ১১:২৫:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ এপ্রিল ২০২২

মোঃ রাছেল : বেহুলা লক্ষিন্দরের স্মৃতি বিজরিত মনসা মুড়া ও কড়ইয়া বটতলায় ১লা বৈশাখ উপলক্ষে মেলা ও পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

Model Hospital

শুক্রবার সকাল থেকে পালাখাল মডেল ইউনিয়নের ভূইয়ারা মনসা মুড়া প্রাঙ্গনে ভক্ত বৃন্দের পূজা অর্চনা, ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে মনসা পূজা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় মনসা মূড়া এলাকায় আবহমান বাংলার লোকজ শিল্পের তৈরি পন্যসমৃদ্ধ স্টল মেলায় স্থান পায়। একই দিনে পৌরসভার কড়ইয়া বটতলা প্রাঙ্গনে ভক্ত বৃন্দের পূজা অর্চনা, ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শীতলা পূজা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, কচুয়া উপজেলা হিন্দু বৌদ্ধ খিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের সভাপতি প্রাণধন দেব, সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তুষ পোদ্দার, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ফনী ভূষণ মজুমদার তাপু, বিকাশ সাহা, কচুয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মানিক ভৌমিক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুজন পোদ্দার, মনসা মন্দির কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রণয় চক্রবর্তী ও কড়ইয়া বটতলা কমিটির আহবায়ক মানিক মজুমদার সোহাগ প্রমূখ। পূজা অর্চনা করে পুরোহিত বিশ^জিৎ চক্রবর্তী ও প্রবীর চক্রবর্তী ।

উল্লেখ্য যে, কচুয়া উপজেলা এই দুইটি স্থানে পহেলা বৈশাখ আসলেই দুই তিন দিন আগ থেকেই দূর দূরান্ত থেকে মাটির তৈরির বিভিন্ন খেলনা পুতুল, মুখোশ সহ বিভিন্ন ধরনের স্টলের প্রসরা সাজিয়ে বসত। করোনা ও মহামারীর কারনে গত দু’বছর যাবৎ মেলার কার্যক্রম স্থগিত থাকায় হারিয়ে যেতে বসেছে বাংলার আবহমান সংস্কৃতি সকল ধর্মের মিলন মেলার স্থল মনসা মুড়া ও কড়ইয়ার বটতলার স্থান ।

কচুয়ার এই ঐতিহ্য কে ধরে রাখতে হলে এই দু’টি স্থানের সংস্কারের দাবি উঠেছে।