ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে মহান বিজয় দিবসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নজর কাড়া আলোকসজ্জ্বা

মো. মাসুদ রানা : স্বাধীনতার একান্ন বছরে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনে শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্ত শাসিত প্রতিষ্ঠান দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জ্বা করেছে। যেটি রাতের বেলায় পথচারী সহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষের নজর কাড়ছে।
সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এবার শাহরাস্তি উপজেলা কমপ্লেক্স, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পৌরসভা, ফায়ার সার্ভিস, শাহরাস্তি থানা প্রশাসনসহ সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্ত শাসিত প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যক্তি পর্যায়ের ক্লাব ও সংগঠন এ আলোকসজ্জ্বা করে।   ১৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার থেকে ১৮ ডিসেম্বর রোববার পর্যন্ত পথচারীদের অভিমতে জানা যায়, এবার শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আলোকসজ্জ্বাটি ছিল নজর কাড়ার মত।
রোববার রাতে সরজমিনে গিয়ে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখা যায় সত্যি এবারের আলোকসজ্জ্বাটি ছিল নয়নাঅবিরাম।
এ প্রসঙ্গে, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাসির উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, আমি এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের যোগদানের পর থেকে সকল ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। যার সুফল ইতোমধ্যে শাহরাস্তি বাসি পাওয়া শুরু করেছে। তারেই কলশ্রুতিতে স্বাধীনতা যুদ্ধের অকুতোভয় বীর সেনাদের সম্মান দেখাতে এ অসামান্য আয়োজন। মেডিসিন দোকানদার আব্দুর রাজ্জাক বলেন, শাহরাস্তির ইতিহাসে এই আলোক সজ্জ্বাটি সত্যিই মনোরম ও দৃষ্টিনন্দন ।
শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাবেক কর্মচারী আলী আশরাফ বলেন, ডা. নাসির উদ্দিন স্যার শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আসার পর  সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছেন।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান হচ্ছে

শাহরাস্তিতে মহান বিজয় দিবসে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নজর কাড়া আলোকসজ্জ্বা

আপডেট সময় : ০৭:১৮:২৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২২
মো. মাসুদ রানা : স্বাধীনতার একান্ন বছরে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনে শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্ত শাসিত প্রতিষ্ঠান দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জ্বা করেছে। যেটি রাতের বেলায় পথচারী সহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষের নজর কাড়ছে।
সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, এবার শাহরাস্তি উপজেলা কমপ্লেক্স, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পৌরসভা, ফায়ার সার্ভিস, শাহরাস্তি থানা প্রশাসনসহ সরকারি বেসরকারি স্বায়ত্ত শাসিত প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ব্যক্তি পর্যায়ের ক্লাব ও সংগঠন এ আলোকসজ্জ্বা করে।   ১৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার থেকে ১৮ ডিসেম্বর রোববার পর্যন্ত পথচারীদের অভিমতে জানা যায়, এবার শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আলোকসজ্জ্বাটি ছিল নজর কাড়ার মত।
রোববার রাতে সরজমিনে গিয়ে শাহরাস্তি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখা যায় সত্যি এবারের আলোকসজ্জ্বাটি ছিল নয়নাঅবিরাম।
এ প্রসঙ্গে, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নাসির উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, আমি এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের যোগদানের পর থেকে সকল ক্ষেত্রে পরিবর্তন আনার যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। যার সুফল ইতোমধ্যে শাহরাস্তি বাসি পাওয়া শুরু করেছে। তারেই কলশ্রুতিতে স্বাধীনতা যুদ্ধের অকুতোভয় বীর সেনাদের সম্মান দেখাতে এ অসামান্য আয়োজন। মেডিসিন দোকানদার আব্দুর রাজ্জাক বলেন, শাহরাস্তির ইতিহাসে এই আলোক সজ্জ্বাটি সত্যিই মনোরম ও দৃষ্টিনন্দন ।
শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাবেক কর্মচারী আলী আশরাফ বলেন, ডা. নাসির উদ্দিন স্যার শাহরাস্তি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আসার পর  সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব সাফল্য দেখিয়েছেন।