ঢাকা ০৯:০১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ে বিচ্ছেদে পিছিয়ে সিলেট, এগিয়ে রাজশাহী

রাজশাহী বিভাগে বিয়ে বিচ্ছেদের হার সবচেয়ে বেশি। এ বিভাগে প্রতি হাজার জনসংখ্যার হিসাবে বিচ্ছেদ ঘটছে ১ দশমিক ৩৬ জনের। বিয়ে বিচ্ছেদে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে খুলনা বিভাগ। বিভাগটিতে বিচ্ছেদের হার প্রতি হাজারে ১ দশমিক শূন্য ৮ জন। সবচেয়ে কম বিচ্ছেদ ঘটে সিলেট বিভাগে। সেখানে প্রতি হাজার জনসংখ্যার বিপরীতে বিচ্ছেদ হার শূন্য দশমিক ১৯ জন।

Model Hospital

সারাদেশে গড়ে প্রতি এক হাজার জনসংখ্যার বিপরীতে তালাকের অনুপাত শূন্য দশমিক ৭৩ জন। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর ‘মনিটরিং দ্য সিচুয়েশন অব ভাইটাল স্ট্যাটিস্টিকস অব বাংলাদেশ ২০২১’ জরিপের ফলাফলে এসব তথ্য জানা গেছে।

জরিপের তথ্যমতে, দাম্পত্য সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য তালাক ব্যবস্থা গ্রহণ করা মানুষের সংখ্যা বেশি গ্রামে। শহরে এ হার গ্রামের তুলনায় কম। আগের বছরের হারের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, তালাকের ঝুঁকি গত বছরের তুলনায় পরিবর্তিত হয়েছে। ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালের জরিপে বিয়ে বিচ্ছেদের ঝুঁকি প্রায় ১৭ শতাংশ কমেছে।

শহর ও পল্লি অঞ্চলের বাসস্থানের ভিত্তিতে তালাকের এ অনুপাতে পার্থক্য বিদ্যমান। শহরে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ৫ ও পল্লি অঞ্চলে শূন্য দশমিক শূন্য ৬। এছাড়া প্রশাসনিক বিভাগগুলোর মধ্যে বিয়ে বিচ্ছেদের এ চিত্রে ভিন্নতা লক্ষ্য করা গেছে।

এতে দেখা যায়, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগে বিয়ে বিচ্ছেদের হার সবচেয়ে বেশি। এ দুই বিভাগে এটির হার শূন্য দশমিক শূন্য ৮। বিচ্ছেদের হার সর্বনিম্ন সিলেট বিভাগে। সেখানে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ১।

তালাকের হারের সঙ্গে শিক্ষার একটি নেতিবাচক সম্পর্ক রয়েছে। জরিপে দেখা গেছে, যাদের মধ্যে ন্যূনতম শিক্ষা নেই, তাদের মধ্যে এ হার শূন্য দশমিক ২৯ এবং যাদের মাধ্যমিক বা তার ওপরের স্তরের শিক্ষা রয়েছে, তাদের মধ্যে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ৩।

ট্যাগস :

মতলব উত্তর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ

বিয়ে বিচ্ছেদে পিছিয়ে সিলেট, এগিয়ে রাজশাহী

আপডেট সময় : ১২:৩৪:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ এপ্রিল ২০২৩

রাজশাহী বিভাগে বিয়ে বিচ্ছেদের হার সবচেয়ে বেশি। এ বিভাগে প্রতি হাজার জনসংখ্যার হিসাবে বিচ্ছেদ ঘটছে ১ দশমিক ৩৬ জনের। বিয়ে বিচ্ছেদে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে খুলনা বিভাগ। বিভাগটিতে বিচ্ছেদের হার প্রতি হাজারে ১ দশমিক শূন্য ৮ জন। সবচেয়ে কম বিচ্ছেদ ঘটে সিলেট বিভাগে। সেখানে প্রতি হাজার জনসংখ্যার বিপরীতে বিচ্ছেদ হার শূন্য দশমিক ১৯ জন।

Model Hospital

সারাদেশে গড়ে প্রতি এক হাজার জনসংখ্যার বিপরীতে তালাকের অনুপাত শূন্য দশমিক ৭৩ জন। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর ‘মনিটরিং দ্য সিচুয়েশন অব ভাইটাল স্ট্যাটিস্টিকস অব বাংলাদেশ ২০২১’ জরিপের ফলাফলে এসব তথ্য জানা গেছে।

জরিপের তথ্যমতে, দাম্পত্য সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য তালাক ব্যবস্থা গ্রহণ করা মানুষের সংখ্যা বেশি গ্রামে। শহরে এ হার গ্রামের তুলনায় কম। আগের বছরের হারের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, তালাকের ঝুঁকি গত বছরের তুলনায় পরিবর্তিত হয়েছে। ২০২০ সালের তুলনায় ২০২১ সালের জরিপে বিয়ে বিচ্ছেদের ঝুঁকি প্রায় ১৭ শতাংশ কমেছে।

শহর ও পল্লি অঞ্চলের বাসস্থানের ভিত্তিতে তালাকের এ অনুপাতে পার্থক্য বিদ্যমান। শহরে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ৫ ও পল্লি অঞ্চলে শূন্য দশমিক শূন্য ৬। এছাড়া প্রশাসনিক বিভাগগুলোর মধ্যে বিয়ে বিচ্ছেদের এ চিত্রে ভিন্নতা লক্ষ্য করা গেছে।

এতে দেখা যায়, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগে বিয়ে বিচ্ছেদের হার সবচেয়ে বেশি। এ দুই বিভাগে এটির হার শূন্য দশমিক শূন্য ৮। বিচ্ছেদের হার সর্বনিম্ন সিলেট বিভাগে। সেখানে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ১।

তালাকের হারের সঙ্গে শিক্ষার একটি নেতিবাচক সম্পর্ক রয়েছে। জরিপে দেখা গেছে, যাদের মধ্যে ন্যূনতম শিক্ষা নেই, তাদের মধ্যে এ হার শূন্য দশমিক ২৯ এবং যাদের মাধ্যমিক বা তার ওপরের স্তরের শিক্ষা রয়েছে, তাদের মধ্যে এ হার শূন্য দশমিক শূন্য ৩।