ঢাকা ০৬:০৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
অবশেষে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট একটির বেশি ফোনে ব্যবহার করার সুবিধা চালু করল কোম্পানি। কীভাবে এটি কাজ করবে?

কীভাবে একসাথে 4টি ফোনে ব্যবহার করা যাবে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট!

WhatsApp ইউজারদের জন্য সুখবর, দীর্ঘ অপেক্ষা কাটিয়ে অবশেষে একই অ্যাকাউন্ট একাধিক ফোনে ব্যবহার করার সুবিধা চালু হতে চলেছে। আসলে বছর দুয়েক আগে এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্মটি ‘মাল্টি-ডিভাইস লিঙ্ক’ নামক ফিচার নিয়ে এলেও, তাতে অধিকাংশ ইউজারের খুব একটা লাভ হয়নি, কারণ এর মাধ্যমে একটির বেশি ফোনে নিজেদের অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করে (ঠিক Facebook-এর মত) ব্যবহার করার অপশন ছিলনা। তবে ইউজাররা এই নিয়ে বারবার বলার পর, এখন Meta মালিকানাধীন কোম্পানিটি একই সাথে অন্য চারটি স্মার্টফোনে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের ফিচার চালু করল। মার্ক জুকারবার্গের ঘোষণা অনুযায়ী, আজ থেকেই এই সুবিধা উপলব্ধ হয়েছে যাতে করে ব্যস্ত জীবনে বা এমার্জেন্সিতে WhatsApp ব্যবহার আরও সহজ হয়ে যাবে।

Model Hospital

একসাথে চারটি ফোনে ব্যবহার করা যাবে নিজের WhatsApp অ্যাকাউন্ট

এতদিন পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপ, ইউজারদের একটি ফোনে প্রাইমারী ডিভাইস হিসেবে অ্যাকাউন্ট লগ-ইন রাখার পাশাপাশি কম্পিউটার, ওয়েব ভার্সন বা ট্যাবলেটে সেটি ব্যবহার করতে দিত। তবে অতিসম্প্রতি সংস্থাটি একটি অফিসিয়াল ব্লগ পোস্টে ঘোষণা করেছে যে, এবার থেকে ব্যবহারকারীরা প্রয়োজনে তাদের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি চারটি অতিরিক্ত স্মার্টফোনে লিঙ্কড করতে সক্ষম হবেন এবং সেকেন্ডারি ডিভাইসটিতে অনুমোদনের জন্য প্রাইমারী ফোন ব্যবহার করতে হবে। এতে করে খুব সহজেই সেকেন্ডারি ডিভাইসে/ডিভাইসগুলিতে তাদের সমস্ত মেসেজ, ফটো এবং অন্যান্য মিডিয়া অ্যাক্সেস করা সম্ভব হবে। কিন্তু এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারের নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তার কোনোরকম সমস্যা হবেনা; বরাবরের মত, সমস্ত চ্যাট এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্ট করা হবে।

কোম্পানির মতে, এক্ষেত্রে অন্য ফোনে অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করার প্রক্রিয়াটি হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব ব্যবহারের অনুরূপ হবে – ফিচারটি সবার জন্য রোলআউট হলে ইউজারদের আপাতত একটি কিউআর (QR) কোড স্ক্যান করতে হবে, যদিও পরবর্তীতে এর জন্য মানে অন্যান্য ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট লগ-ইনের জন্য সংস্থা ওটিপি (OTP) ভিত্তিক অথেন্টিকেশন সিস্টেম আনবে। উল্লেখ্য, হোয়াটসঅ্যাপ আরও বলেছে যে প্রাইমারী যে ফোনটিতে অ্যাকাউন্টটি লগ-ইন করা হবে, তা কিছু সময়ের জন্য নিষ্ক্রিয় থাকলে, এর সাথে লিঙ্কড অন্যান্য ডিভাইসগুলিতেও অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস স্বয়ংক্রিয়ভাবে লগ-আউট হয়ে যাবে। কিন্তু যেমনটা আগে বলেছি, ইউজারদের হাতে প্রাইমারী ফোন না থাকলেও নতুন ফিচারের মাধ্যমে তারা হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এবং চ্যাটগুলি অ্যাক্সেস করতে পারবেন। এর জন্য প্রাইমারী ফোন চালু রাখা বা তাতে ইন্টারনেট কানেকশন অন রাখার প্রয়োজন নেই।

কীভাবে অন্য ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করবেন

১. আপনার কাছে নতুন ফিচার উপস্থিত হলে, নিজের প্রাইমারী ফোন ছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পছন্দসই কোনো ডিভাইস বেছে নিন এবং সেই সেকেন্ডারি ডিভাইসে হোয়াটসঅ্যাপ খুলুন।

২. এরপর আপনার প্রাইমারী ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপ খুলে সেটিংস (Settings) থেকে ‘লিঙ্কড ডিভাইস’ (Linked Device) সেকশনটিতে যান।

৩. যদি ইতিমধ্যে আপনার আইডি সেট আপ থাকে, তাহলে পরিচয় যাচাই করতে পরবর্তী ধাপে অন-স্ক্রিন নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

৪. প্রাইমারী ফোনের ক্যামেরা ব্যবহার করে সেকেন্ডারি ডিভাইসে প্রদর্শিত কিউআর (QR) কোড স্ক্যান করুন। এই পুরো প্রক্রিয়াটি হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব সেট আপ করার মতই।

ট্যাগস :

অবশেষে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট একটির বেশি ফোনে ব্যবহার করার সুবিধা চালু করল কোম্পানি। কীভাবে এটি কাজ করবে?

কীভাবে একসাথে 4টি ফোনে ব্যবহার করা যাবে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট!

আপডেট সময় : ০৪:২৯:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ মে ২০২৩

WhatsApp ইউজারদের জন্য সুখবর, দীর্ঘ অপেক্ষা কাটিয়ে অবশেষে একই অ্যাকাউন্ট একাধিক ফোনে ব্যবহার করার সুবিধা চালু হতে চলেছে। আসলে বছর দুয়েক আগে এই ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্মটি ‘মাল্টি-ডিভাইস লিঙ্ক’ নামক ফিচার নিয়ে এলেও, তাতে অধিকাংশ ইউজারের খুব একটা লাভ হয়নি, কারণ এর মাধ্যমে একটির বেশি ফোনে নিজেদের অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করে (ঠিক Facebook-এর মত) ব্যবহার করার অপশন ছিলনা। তবে ইউজাররা এই নিয়ে বারবার বলার পর, এখন Meta মালিকানাধীন কোম্পানিটি একই সাথে অন্য চারটি স্মার্টফোনে একই WhatsApp অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের ফিচার চালু করল। মার্ক জুকারবার্গের ঘোষণা অনুযায়ী, আজ থেকেই এই সুবিধা উপলব্ধ হয়েছে যাতে করে ব্যস্ত জীবনে বা এমার্জেন্সিতে WhatsApp ব্যবহার আরও সহজ হয়ে যাবে।

Model Hospital

একসাথে চারটি ফোনে ব্যবহার করা যাবে নিজের WhatsApp অ্যাকাউন্ট

এতদিন পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপ, ইউজারদের একটি ফোনে প্রাইমারী ডিভাইস হিসেবে অ্যাকাউন্ট লগ-ইন রাখার পাশাপাশি কম্পিউটার, ওয়েব ভার্সন বা ট্যাবলেটে সেটি ব্যবহার করতে দিত। তবে অতিসম্প্রতি সংস্থাটি একটি অফিসিয়াল ব্লগ পোস্টে ঘোষণা করেছে যে, এবার থেকে ব্যবহারকারীরা প্রয়োজনে তাদের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি চারটি অতিরিক্ত স্মার্টফোনে লিঙ্কড করতে সক্ষম হবেন এবং সেকেন্ডারি ডিভাইসটিতে অনুমোদনের জন্য প্রাইমারী ফোন ব্যবহার করতে হবে। এতে করে খুব সহজেই সেকেন্ডারি ডিভাইসে/ডিভাইসগুলিতে তাদের সমস্ত মেসেজ, ফটো এবং অন্যান্য মিডিয়া অ্যাক্সেস করা সম্ভব হবে। কিন্তু এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ ইউজারের নিরাপত্তা এবং গোপনীয়তার কোনোরকম সমস্যা হবেনা; বরাবরের মত, সমস্ত চ্যাট এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপ্ট করা হবে।

কোম্পানির মতে, এক্ষেত্রে অন্য ফোনে অ্যাকাউন্ট লগ-ইন করার প্রক্রিয়াটি হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব ব্যবহারের অনুরূপ হবে – ফিচারটি সবার জন্য রোলআউট হলে ইউজারদের আপাতত একটি কিউআর (QR) কোড স্ক্যান করতে হবে, যদিও পরবর্তীতে এর জন্য মানে অন্যান্য ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট লগ-ইনের জন্য সংস্থা ওটিপি (OTP) ভিত্তিক অথেন্টিকেশন সিস্টেম আনবে। উল্লেখ্য, হোয়াটসঅ্যাপ আরও বলেছে যে প্রাইমারী যে ফোনটিতে অ্যাকাউন্টটি লগ-ইন করা হবে, তা কিছু সময়ের জন্য নিষ্ক্রিয় থাকলে, এর সাথে লিঙ্কড অন্যান্য ডিভাইসগুলিতেও অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস স্বয়ংক্রিয়ভাবে লগ-আউট হয়ে যাবে। কিন্তু যেমনটা আগে বলেছি, ইউজারদের হাতে প্রাইমারী ফোন না থাকলেও নতুন ফিচারের মাধ্যমে তারা হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য এবং চ্যাটগুলি অ্যাক্সেস করতে পারবেন। এর জন্য প্রাইমারী ফোন চালু রাখা বা তাতে ইন্টারনেট কানেকশন অন রাখার প্রয়োজন নেই।

কীভাবে অন্য ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করবেন

১. আপনার কাছে নতুন ফিচার উপস্থিত হলে, নিজের প্রাইমারী ফোন ছাড়াও হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পছন্দসই কোনো ডিভাইস বেছে নিন এবং সেই সেকেন্ডারি ডিভাইসে হোয়াটসঅ্যাপ খুলুন।

২. এরপর আপনার প্রাইমারী ফোনে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপ খুলে সেটিংস (Settings) থেকে ‘লিঙ্কড ডিভাইস’ (Linked Device) সেকশনটিতে যান।

৩. যদি ইতিমধ্যে আপনার আইডি সেট আপ থাকে, তাহলে পরিচয় যাচাই করতে পরবর্তী ধাপে অন-স্ক্রিন নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

৪. প্রাইমারী ফোনের ক্যামেরা ব্যবহার করে সেকেন্ডারি ডিভাইসে প্রদর্শিত কিউআর (QR) কোড স্ক্যান করুন। এই পুরো প্রক্রিয়াটি হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব সেট আপ করার মতই।