ঢাকা ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কচুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেন ইকবাল হোসেন

নির্বাচন কমিশন (ইসি) উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে। এবার চার ধাপে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হবে ৪ মে থেকে।  বর্তমানে নির্বাচন উপযোগী উপজেলার সংখ্যা ৪৫২টি। চার ধাপে হবে ভোটগ্রহণ। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ৪ মে, দ্বিতীয় ধাপে ১১ মে, তৃতীয় ধাপে ১৮ মে এবং চতুর্থ তথা শেষ ধাপের ভোট হবে ২৫ মে।
আসন্ন কচুয়া  উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা দিয়েছে পালাখাল মডেল ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্ৰামের কৃতিসন্তান  ইউপি সদস্য ইকবাল হোসেন।
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই কচুয়া উপজেলায় এবার শুরু হয়েছে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন নিয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ। গত ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর আবারও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে নতুন সরকার গঠনের পর ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী, বিশেষ করে যারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার আশা করেছেন তারা ইতোমধ্যে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।
অনেকেই আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তার প্রার্থী হওয়ার কথা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে জানান দিচ্ছেন।
ইকবাল হোসেন নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কথা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির মাঠে আছি।
পালাখাল মডেল ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মানুষ আমাকে ভালোবেসে টানা দুই বার ইউপি সদস্য পদে নির্বাচিত করেছে । আমি সামাজিক- সাংস্কৃতিক সংগঠন, শিক্ষা ও অসহায় লোকজনের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান ও উন্নয়ন নিয়ে সব সময় মাঠে কাজ করছি।
বিভিন্ন সামাজিক কাজেও মানুষের পাশে দাঁড়াবার চেষ্টা করি। কতটুকু সহযোগিতা করতে পারি জানি না। তবে মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করি। পৌরসভা সহ ১২ টি ইউনিয়নের  সকলেই আমাকে ভালোবাসেন।
আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আমি সকলের ভোট প্রত্যাশী, ব্যাপক ভোটে বিজয়ী হবো বলে আমি আশাবাদী।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

রমজানের আগেই ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ দাবি নতুনধারার

কচুয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেন ইকবাল হোসেন

আপডেট সময় : ০৯:২২:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
নির্বাচন কমিশন (ইসি) উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে। এবার চার ধাপে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হবে ৪ মে থেকে।  বর্তমানে নির্বাচন উপযোগী উপজেলার সংখ্যা ৪৫২টি। চার ধাপে হবে ভোটগ্রহণ। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ৪ মে, দ্বিতীয় ধাপে ১১ মে, তৃতীয় ধাপে ১৮ মে এবং চতুর্থ তথা শেষ ধাপের ভোট হবে ২৫ মে।
আসন্ন কচুয়া  উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষণা দিয়েছে পালাখাল মডেল ইউনিয়নের এনায়েতপুর গ্ৰামের কৃতিসন্তান  ইউপি সদস্য ইকবাল হোসেন।
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ কাটতে না কাটতেই কচুয়া উপজেলায় এবার শুরু হয়েছে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন নিয়ে সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ। গত ৭ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর আবারও আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে নতুন সরকার গঠনের পর ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী, বিশেষ করে যারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ার আশা করেছেন তারা ইতোমধ্যে নেতাকর্মী ও সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।
অনেকেই আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তার প্রার্থী হওয়ার কথা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে জানান দিচ্ছেন।
ইকবাল হোসেন নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কথা নিশ্চিত করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে রাজনীতির মাঠে আছি।
পালাখাল মডেল ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মানুষ আমাকে ভালোবেসে টানা দুই বার ইউপি সদস্য পদে নির্বাচিত করেছে । আমি সামাজিক- সাংস্কৃতিক সংগঠন, শিক্ষা ও অসহায় লোকজনের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান ও উন্নয়ন নিয়ে সব সময় মাঠে কাজ করছি।
বিভিন্ন সামাজিক কাজেও মানুষের পাশে দাঁড়াবার চেষ্টা করি। কতটুকু সহযোগিতা করতে পারি জানি না। তবে মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করি। পৌরসভা সহ ১২ টি ইউনিয়নের  সকলেই আমাকে ভালোবাসেন।
আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে আমি সকলের ভোট প্রত্যাশী, ব্যাপক ভোটে বিজয়ী হবো বলে আমি আশাবাদী।