ঢাকা ০২:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় চুরি হওয়ার মালামাল উদ্ধার, আটক ১

কচুয়ায় চুরি হওয়ার ৮ দিন পর চোরের ঘর থেকে মালামালসহ চোরকে আটক করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

Model Hospital

শুক্রবার বিকেলে উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের আইনগিরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। চোর ইউসুফ আইনগিরী গ্রামের মৃত: রজ্জব আলীর ছেলে।

চুরি হওয়ার ঘটনার পর ভুক্তভোগী শাহ আলম মীর বাদী হয়ে গত ৯ ফেব্রুয়ারী কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযাগ সূত্রে জানাযায়,আইনগিরী গ্রামের শাহ আলম মীর ব্যবসার কারনে পরিবার নিয়ে কুমিল্লা বসবাস করেন । সে সুযোগে চোরচক্র ৭ ফেব্রুয়ারী রাতের কোন এক সময় তার ঘরের কলাপসিবলের গেটের তালা কেটে ঘরে প্রবেশ করে সকল মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

৮ ফেব্রুয়ারী সকালে তার বাড়ির গোলাম সরোয়ার নামে এক ব্যক্তি শাহ আলমের ঘরের গেট খোলা দেখতে পেয়ে শাহ আলমকে খবর দেয়। খবর পেয়ে শাহ আলম বাড়িতে এসে দেখে তার ঘরের সকল মালামাল চুরি করে নিয়ে যায় চোরচক্র। পরে তিনি বাদী কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল কাশেম জানান, শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার পর এলাকায় বিভিন্ন ভাবে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করি।

এক পর্যায়ে এলাকার লোকজনের তথ্য অনুযায়ী একই গ্রামের মৃত রজ্জব আলীর ছেলে ইউসুফ আলীর ঘরে শাহ আলমের ঘরের মালামাল রয়েছে বলে খবর পাই। ওই তথ্য অনুযায়ী আমি ও গ্রাম পুলিশ ইউসুফের ঘরে প্রবেশ করে দেখি শাহ আলমের অভিযোগের উল্লেখিত মালামাল তার ঘরে রয়েছে।

পরে স্থানীয়দের সহযোগিতা ইউসুফকে আটক করে ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে অবগত করি।

ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বলেন, শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার মালামাল সন্ধান পেয়েছে বলে আমাকে ইউপি সদস্য আবুল কাশেম জানান। আমি ঘটনাস্থলে এসে কচুয়া থানার পুলিশকে ঘটনাটি অবগত করি।

কচুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মামুনুর রশিদ সরকার জানান, আইনগিরী গ্রামে শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার ঘটনার বিষয়টি কচুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ রয়েছে।

উদ্ধারকৃত মালামাল শাহ আলমকে বুঝিয়ে দিয়ে ইউসুফকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

মতলব উত্তরে কাপ-পিরিচ প্রতীকে উঠান বৈঠক ও ব্যাপক গণসংযোগ

কচুয়ায় চুরি হওয়ার মালামাল উদ্ধার, আটক ১

আপডেট সময় : ০৭:৫১:৪৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

কচুয়ায় চুরি হওয়ার ৮ দিন পর চোরের ঘর থেকে মালামালসহ চোরকে আটক করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী।

Model Hospital

শুক্রবার বিকেলে উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের আইনগিরী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। চোর ইউসুফ আইনগিরী গ্রামের মৃত: রজ্জব আলীর ছেলে।

চুরি হওয়ার ঘটনার পর ভুক্তভোগী শাহ আলম মীর বাদী হয়ে গত ৯ ফেব্রুয়ারী কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযাগ সূত্রে জানাযায়,আইনগিরী গ্রামের শাহ আলম মীর ব্যবসার কারনে পরিবার নিয়ে কুমিল্লা বসবাস করেন । সে সুযোগে চোরচক্র ৭ ফেব্রুয়ারী রাতের কোন এক সময় তার ঘরের কলাপসিবলের গেটের তালা কেটে ঘরে প্রবেশ করে সকল মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

৮ ফেব্রুয়ারী সকালে তার বাড়ির গোলাম সরোয়ার নামে এক ব্যক্তি শাহ আলমের ঘরের গেট খোলা দেখতে পেয়ে শাহ আলমকে খবর দেয়। খবর পেয়ে শাহ আলম বাড়িতে এসে দেখে তার ঘরের সকল মালামাল চুরি করে নিয়ে যায় চোরচক্র। পরে তিনি বাদী কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল কাশেম জানান, শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার পর এলাকায় বিভিন্ন ভাবে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করি।

এক পর্যায়ে এলাকার লোকজনের তথ্য অনুযায়ী একই গ্রামের মৃত রজ্জব আলীর ছেলে ইউসুফ আলীর ঘরে শাহ আলমের ঘরের মালামাল রয়েছে বলে খবর পাই। ওই তথ্য অনুযায়ী আমি ও গ্রাম পুলিশ ইউসুফের ঘরে প্রবেশ করে দেখি শাহ আলমের অভিযোগের উল্লেখিত মালামাল তার ঘরে রয়েছে।

পরে স্থানীয়দের সহযোগিতা ইউসুফকে আটক করে ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেনকে অবগত করি।

ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন বলেন, শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার মালামাল সন্ধান পেয়েছে বলে আমাকে ইউপি সদস্য আবুল কাশেম জানান। আমি ঘটনাস্থলে এসে কচুয়া থানার পুলিশকে ঘটনাটি অবগত করি।

কচুয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মামুনুর রশিদ সরকার জানান, আইনগিরী গ্রামে শাহ আলমের ঘরে চুরি হওয়ার ঘটনার বিষয়টি কচুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ রয়েছে।

উদ্ধারকৃত মালামাল শাহ আলমকে বুঝিয়ে দিয়ে ইউসুফকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসি।