ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন

কচুয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার সভাপতি সাজেদুল হাসান

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চাঁদপুরের কচুয়া সফিবাদ হযরত মরিয়ম (আঃ) আদর্শ মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার সভাপতি, পিজি হাসপাতালের রেন্ট কালেক্টর (ইনচার্জ) মো. সাজেদুল হাসান।

Model Hospital
পবিত্র ঈদ-উল- ফিতর উপলক্ষে এক বাণীতে এই শুভেচ্ছা জানান তিনি।

তিনি বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর হচ্ছে মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব। এক মাস রোযা রেখে সিয়াম পালন মানুষকে আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে মুত্তাকি হিসেবে গড়ে তুলে। এর আলোকে নিজেকে পরিচালিত করার দীপ্ত শপথ নিতে হবে। আত্মশুদ্ধির মাস রমজান থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা এগিয়ে যাবো ঈদুল ফিতরে মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ও অনৈক্য ভুলে গিয়ে পরস্পরকে ভ্রাতৃত্ব, সম্প্রিতি ও সৌহার্দ্যের বন্ধনে আবদ্ধ করে সামাজিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করে। ঈদ আমাদের ব্যক্তিগত, সামাজিক ও মুসলমানদের ঐক্যের বন্ধন শক্তিশালী করে।

আবদুর রশিদ বলেন, ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম শিক্ষা দেয়। হিংসা-বিদ্বেষ ও হানাহানি ভুলে মানুষ সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়। ঈদ ধনী-গরিব নির্বিশেষে সকলের জীবনে আনন্দের বার্তা বয়ে নিয়ে আসে। ঈদের আনন্দ আমাদের সবার।

তিনি ঈদ-উল-ফিতরের মহিমায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশ ও জনগণের কল্যাণে আত্মনিয়োগ করতে সকলের প্রতি  আহ্বান জানান।

জীবনের প্রতিটি দিনই হোক ঈদের মতো আনন্দময় এই কামনায় সবাইকে ঈদ মোবারক।

ট্যাগস :

পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন

কচুয়া মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার সভাপতি সাজেদুল হাসান

আপডেট সময় : ০৯:৫২:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০২৪
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন চাঁদপুরের কচুয়া সফিবাদ হযরত মরিয়ম (আঃ) আদর্শ মহিলা মাদ্রাসা ও এতিমখানার সভাপতি, পিজি হাসপাতালের রেন্ট কালেক্টর (ইনচার্জ) মো. সাজেদুল হাসান।

Model Hospital
পবিত্র ঈদ-উল- ফিতর উপলক্ষে এক বাণীতে এই শুভেচ্ছা জানান তিনি।

তিনি বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর হচ্ছে মুসলমানদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব। এক মাস রোযা রেখে সিয়াম পালন মানুষকে আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে মুত্তাকি হিসেবে গড়ে তুলে। এর আলোকে নিজেকে পরিচালিত করার দীপ্ত শপথ নিতে হবে। আত্মশুদ্ধির মাস রমজান থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা এগিয়ে যাবো ঈদুল ফিতরে মানুষে মানুষে ভেদাভেদ ও অনৈক্য ভুলে গিয়ে পরস্পরকে ভ্রাতৃত্ব, সম্প্রিতি ও সৌহার্দ্যের বন্ধনে আবদ্ধ করে সামাজিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করে। ঈদ আমাদের ব্যক্তিগত, সামাজিক ও মুসলমানদের ঐক্যের বন্ধন শক্তিশালী করে।

আবদুর রশিদ বলেন, ঈদ শান্তি, সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ববোধের অনুপম শিক্ষা দেয়। হিংসা-বিদ্বেষ ও হানাহানি ভুলে মানুষ সাম্য, মৈত্রী ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ হয়। ঈদ ধনী-গরিব নির্বিশেষে সকলের জীবনে আনন্দের বার্তা বয়ে নিয়ে আসে। ঈদের আনন্দ আমাদের সবার।

তিনি ঈদ-উল-ফিতরের মহিমায় উদ্বুদ্ধ হয়ে নিজ নিজ অবস্থান থেকে দেশ ও জনগণের কল্যাণে আত্মনিয়োগ করতে সকলের প্রতি  আহ্বান জানান।

জীবনের প্রতিটি দিনই হোক ঈদের মতো আনন্দময় এই কামনায় সবাইকে ঈদ মোবারক।