ঢাকা ০৮:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কচুয়ায় সংখ্যালগু পরিবারের সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

কচুয়া পৌরসভার কড়ইয়া গ্রামে সংখ্যালগু পরিবারের বসত বাড়ি ও সম্পত্তি দখলের অভিযোগ উঠেছে।

Model Hospital

পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বর্ধন বাড়ির ভুক্তভোগী স্বপন বর্ধন জানান, আমার কড়ইয়া মৌজার ৮৫নং খতিয়ানের ৮৮৫ দাগে ১০.৫ শতাংস ও সাবেক ৪৯০,৪৯২ ও ৪৯৩ দাগে ১০.২৫ শতাংশ সম্পত্তি পাশ্ববর্তী বাড়ির আব্দুল খালেক ও আব্দুল মালেক গং কোন প্রকার দলিল ছাড়াই বিএস রেকর্ড করে নেয়। সঠিকভাবে সম্পত্তির নামজারি ও জমা খারিজ করারদ জন্য আমি বাদী হয়ে মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুল কাইয়ুম,মৃত মালেকের ছেলে জুয়েলসহ ১৩জনকে বিবাদী করে চাঁদপুরের বিজ্ঞ কচুয়া সহকারি জজ আদালতে একটি দেওয়ানী মামলা দায়ের করি। যাহার মামলার নং ২১৪/২০২৩,তারিখ ০৩/০৯/২০২৩ ইং। মামলাটি আদালতে চলমান।

তিনি আরো জানান,শনিবার আব্দুল মালেক ও আব্দুল খালেকের ওয়ারিশ জুয়েল হোসেন,ইয়াহিয়া তাদের কাদলা ইউনিয়নের দেবিপুর গ্রামের সম্পর্কীয় মামা ইয়াছিনসহ দলবল নিয়ে আমাদের সম্পত্তিতে জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা চালায়।

এতে আমি আমার ছেলে জয়ন্ত বর্ধনসহ বাধা দিতে গেলে তারা দলবদ্ধ হয়ে আমাদেরকে গালমন্দ করে মারধর করার জন্য এগিয়ে আসে ও প্রাণনাশের হুমকি এবং মেরে লাশ ঘুম করার লাশ হুমকি প্রদান করে। তারা আমাদেরকে দেশ থেকে বিতারিত করার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী মহল ও বহিরাগত লোকজনকে ভাড়া করে আমাদেরকে বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করে আসছে।

বর্তমানে আমি পরিবার পরিজন নিয়ে নিরপত্তাহীনতায় মধ্যে বসবাস করছি। তারা যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘনা ঘটাতে পারে। এ ব্যাপারে স্বপন বর্ধন শনিবার খালেকের ছেলে ইয়াহিয়া,জুয়েল ,মালেকের ছেলে জিয়াউর রহমান,মুসাসহ অজ্ঞাত ৮/১০জনকে বিবাদী করে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এমতাবস্থায় আমি প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে ন্যায় বিচার আশা করছি।

বিবাদী জুয়েল হোসেন জানান,স্বপন বর্ধনের মা মায়ারানী আমাদের নিকট ১৮ শতক সম্পত্তি বিক্রি করেছে। তবে সম্পত্তির সাফকাবলা রেজিষ্ট্রি হয় নাই।

ট্যাগস :

কনের পরিবারের ইচ্ছেপূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে এলেন লালমনিরহাটের মামুন

কচুয়ায় সংখ্যালগু পরিবারের সম্পত্তি দখলের অভিযোগ

আপডেট সময় : ১০:২৪:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

কচুয়া পৌরসভার কড়ইয়া গ্রামে সংখ্যালগু পরিবারের বসত বাড়ি ও সম্পত্তি দখলের অভিযোগ উঠেছে।

Model Hospital

পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বর্ধন বাড়ির ভুক্তভোগী স্বপন বর্ধন জানান, আমার কড়ইয়া মৌজার ৮৫নং খতিয়ানের ৮৮৫ দাগে ১০.৫ শতাংস ও সাবেক ৪৯০,৪৯২ ও ৪৯৩ দাগে ১০.২৫ শতাংশ সম্পত্তি পাশ্ববর্তী বাড়ির আব্দুল খালেক ও আব্দুল মালেক গং কোন প্রকার দলিল ছাড়াই বিএস রেকর্ড করে নেয়। সঠিকভাবে সম্পত্তির নামজারি ও জমা খারিজ করারদ জন্য আমি বাদী হয়ে মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুল কাইয়ুম,মৃত মালেকের ছেলে জুয়েলসহ ১৩জনকে বিবাদী করে চাঁদপুরের বিজ্ঞ কচুয়া সহকারি জজ আদালতে একটি দেওয়ানী মামলা দায়ের করি। যাহার মামলার নং ২১৪/২০২৩,তারিখ ০৩/০৯/২০২৩ ইং। মামলাটি আদালতে চলমান।

তিনি আরো জানান,শনিবার আব্দুল মালেক ও আব্দুল খালেকের ওয়ারিশ জুয়েল হোসেন,ইয়াহিয়া তাদের কাদলা ইউনিয়নের দেবিপুর গ্রামের সম্পর্কীয় মামা ইয়াছিনসহ দলবল নিয়ে আমাদের সম্পত্তিতে জোরপূর্বক দখলের চেষ্টা চালায়।

এতে আমি আমার ছেলে জয়ন্ত বর্ধনসহ বাধা দিতে গেলে তারা দলবদ্ধ হয়ে আমাদেরকে গালমন্দ করে মারধর করার জন্য এগিয়ে আসে ও প্রাণনাশের হুমকি এবং মেরে লাশ ঘুম করার লাশ হুমকি প্রদান করে। তারা আমাদেরকে দেশ থেকে বিতারিত করার জন্য স্থানীয় প্রভাবশালী মহল ও বহিরাগত লোকজনকে ভাড়া করে আমাদেরকে বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করে আসছে।

বর্তমানে আমি পরিবার পরিজন নিয়ে নিরপত্তাহীনতায় মধ্যে বসবাস করছি। তারা যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘনা ঘটাতে পারে। এ ব্যাপারে স্বপন বর্ধন শনিবার খালেকের ছেলে ইয়াহিয়া,জুয়েল ,মালেকের ছেলে জিয়াউর রহমান,মুসাসহ অজ্ঞাত ৮/১০জনকে বিবাদী করে কচুয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এমতাবস্থায় আমি প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে ন্যায় বিচার আশা করছি।

বিবাদী জুয়েল হোসেন জানান,স্বপন বর্ধনের মা মায়ারানী আমাদের নিকট ১৮ শতক সম্পত্তি বিক্রি করেছে। তবে সম্পত্তির সাফকাবলা রেজিষ্ট্রি হয় নাই।