ঢাকা ১১:৩২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাঁদপুর ইব্রাহিমপুরে খাস সম্পত্তির মাটি কেটে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে বিক্রি!

নিজস্ব প্রতিনিধি : প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ভোর রাতে চাঁদপুর আলুবাজার ফেরিঘাট সংলগ্ন ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের রাস্তার পাশে সরকারি খাস সম্পত্তি মাটি ভেকু দিয়ে কেটে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

Model Hospital

চাঁদপুর-শরীয়তপুর রাস্তার পাশে ভূমিদস্যু চক্রেরা সরকারি জায়গা থেকে মাটি কেটে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
এই ঘটনায় স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ গিয়ে বাধা দেওয়া সত্ত্বেও মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডের মালিক সোহাগ বালা ও তার পার্টনাররা ভোররাত থেকে শুরু করে সকাল ৯টা পর্যন্ত প্রকাশ্যে এই মাটি কেটে নেওয়ায় জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

চাঁদপুর-শরীয়তপুর সীমানার পাশে সদর উপজেলার ১১ নং ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে প্রতিবছর এভাবেই সরকারি খাস সম্পত্তির মাটি চুরী করে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

প্রশাসনের উদাসীনতা ও দায়িত্বহীনতার কারণে ভূমিদস্যু চক্ররা সরকারি খাস সম্পত্তির মাটি কেটে নেওয়ার সাহস পাচ্ছে।
শনিবার ভোর পাঁচটায় আলুবাজার ফেরিঘাটসংলগ্ন ইব্রাহিমপুর রাস্তার পাশে ভেকু মেশিন দিয়ে এই মাটি কাটার দৃশ্য দেখা যায়।

সরকারি খাস সম্পত্তি থেকে এভাবে ভূমিদস্যু চক্ররা মাটি চুরী করে নেওয়ার ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জোর দাবী জানান সচেতন মহল। এই বিষয়ে মায়েরদোয়া ব্রিক ফিল্ডের মালিক সোহাগ বলার মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার ফোন করার পরে মাটি কেটে নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি পরে কথা বলবে বলে জানিয়ে মোবাইল সংযোগটি কেটে দেন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, জনপ্রতিনিধি ও ইব্রাহিমপুর ভূমি অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের সাথে যোগসাজশে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডের মালিক ভেকু মেশিন দিয়ে এভাবে মাটি কেটে নিচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দেওয়ার পর কৌশল অবলম্বন করে ভোররাত থেকে শুরু করে সকাল ৯টা পর্যন্ত ভেকু মেশিন দিয়ে রাস্তার পাশে খাস সম্পত্তির মাটি কেটে নিচ্ছে। তারা লাখ লাখ ঘনফুট মাটি কেটে নিয়ে সেখানে অনেক গভীরতা করেছে। যেকোনো সময় চাঁদপুর-শরীয়তপুর সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অতি দ্রুত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে সরকারি সম্পত্তি থেকে মাটি কাটা বন্ধ করা সম্ভব হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

স্কুলের শ্রেণিকক্ষে ‘আপত্তিকর’ অবস্থায় ছাত্রীসহ প্রধান শিক্ষক আটক

চাঁদপুর ইব্রাহিমপুরে খাস সম্পত্তির মাটি কেটে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে বিক্রি!

আপডেট সময় : ০৭:৩২:৪৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২১

নিজস্ব প্রতিনিধি : প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ভোর রাতে চাঁদপুর আলুবাজার ফেরিঘাট সংলগ্ন ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের রাস্তার পাশে সরকারি খাস সম্পত্তি মাটি ভেকু দিয়ে কেটে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

Model Hospital

চাঁদপুর-শরীয়তপুর রাস্তার পাশে ভূমিদস্যু চক্রেরা সরকারি জায়গা থেকে মাটি কেটে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
এই ঘটনায় স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ গিয়ে বাধা দেওয়া সত্ত্বেও মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডের মালিক সোহাগ বালা ও তার পার্টনাররা ভোররাত থেকে শুরু করে সকাল ৯টা পর্যন্ত প্রকাশ্যে এই মাটি কেটে নেওয়ায় জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

চাঁদপুর-শরীয়তপুর সীমানার পাশে সদর উপজেলার ১১ নং ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডে প্রতিবছর এভাবেই সরকারি খাস সম্পত্তির মাটি চুরী করে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

প্রশাসনের উদাসীনতা ও দায়িত্বহীনতার কারণে ভূমিদস্যু চক্ররা সরকারি খাস সম্পত্তির মাটি কেটে নেওয়ার সাহস পাচ্ছে।
শনিবার ভোর পাঁচটায় আলুবাজার ফেরিঘাটসংলগ্ন ইব্রাহিমপুর রাস্তার পাশে ভেকু মেশিন দিয়ে এই মাটি কাটার দৃশ্য দেখা যায়।

সরকারি খাস সম্পত্তি থেকে এভাবে ভূমিদস্যু চক্ররা মাটি চুরী করে নেওয়ার ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জোর দাবী জানান সচেতন মহল। এই বিষয়ে মায়েরদোয়া ব্রিক ফিল্ডের মালিক সোহাগ বলার মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার ফোন করার পরে মাটি কেটে নেওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি পরে কথা বলবে বলে জানিয়ে মোবাইল সংযোগটি কেটে দেন।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, জনপ্রতিনিধি ও ইব্রাহিমপুর ভূমি অফিসের অসাধু কর্মকর্তাদের সাথে যোগসাজশে মায়ের দোয়া ব্রিকফিল্ডের মালিক ভেকু মেশিন দিয়ে এভাবে মাটি কেটে নিচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাধা দেওয়ার পর কৌশল অবলম্বন করে ভোররাত থেকে শুরু করে সকাল ৯টা পর্যন্ত ভেকু মেশিন দিয়ে রাস্তার পাশে খাস সম্পত্তির মাটি কেটে নিচ্ছে। তারা লাখ লাখ ঘনফুট মাটি কেটে নিয়ে সেখানে অনেক গভীরতা করেছে। যেকোনো সময় চাঁদপুর-শরীয়তপুর সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অতি দ্রুত তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করলে সরকারি সম্পত্তি থেকে মাটি কাটা বন্ধ করা সম্ভব হবে।