ঢাকা ০৫:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদগঞ্জের সাংবাদিক সুজনের মায়ের দাফন সম্পন্ন

  • এস এম ইকবাল
  • আপডেট সময় : ১২:১৩:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪
  • 155
দৈনিক আমাদের সময় ও দৈনিক নিউ এইজ’র সংবাদদাতা, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব’র নির্বাহী কমিটির প্রচার সম্পাদক আনিসুর রহমান সুজনের মা রেজিয়া বেগম (৭৮) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহী….রাজিউন)।
সোমবার (৮ জানুয়ারী) দিবাগত রাতে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকাধীন মিরপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যু বরণ করেন তিনি। মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারী) দুপুরে মরহুমার নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
মৃত্যুকালে রেজিয়া বেগম ৪ ছেলে, ২ মেয়ে ও নাতি-নাতনীাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার স্বামী মো. মুখলেছুর রহমান বরকন্দাজ প্রায় গত ৮ বছর পূর্বে মৃত্যু বরণ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন মরহুমার ছেলে আনিসুর রহমান সুজন।
এদিকে সহকর্মী আনিসুর রহমান সুজনের মায়ের মৃত্যুতে সাংবাদিকদের পক্ষে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব’র সভাপতি মো. মামুনুর রশিদ পাঠানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

গরু জবাই করার সময় হার্ট অ্যাটাকে মৃ’ত্যু

ফরিদগঞ্জের সাংবাদিক সুজনের মায়ের দাফন সম্পন্ন

আপডেট সময় : ১২:১৩:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জানুয়ারী ২০২৪
দৈনিক আমাদের সময় ও দৈনিক নিউ এইজ’র সংবাদদাতা, ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব’র নির্বাহী কমিটির প্রচার সম্পাদক আনিসুর রহমান সুজনের মা রেজিয়া বেগম (৭৮) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহী….রাজিউন)।
সোমবার (৮ জানুয়ারী) দিবাগত রাতে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকাধীন মিরপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যু বরণ করেন তিনি। মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারী) দুপুরে মরহুমার নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
মৃত্যুকালে রেজিয়া বেগম ৪ ছেলে, ২ মেয়ে ও নাতি-নাতনীাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার স্বামী মো. মুখলেছুর রহমান বরকন্দাজ প্রায় গত ৮ বছর পূর্বে মৃত্যু বরণ করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন মরহুমার ছেলে আনিসুর রহমান সুজন।
এদিকে সহকর্মী আনিসুর রহমান সুজনের মায়ের মৃত্যুতে সাংবাদিকদের পক্ষে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাব’র সভাপতি মো. মামুনুর রশিদ পাঠানসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।