ঢাকা ০১:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হাজীগঞ্জে লাখ টাকায় বিক্রি করা শিশু ফির‌লো মা‌য়ের কো‌লে

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : চিকিৎসার খরচ মেটা‌তে বিক্রি করে দেওয়া শিশু জোবায়েরা আক্তার মিনাকে অবশেষে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল হাজীগঞ্জ পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন। বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে মা-বাবার কোলে শিশুটিকে তুলে দেওয়া হয়।

Model Hospital

জানা যায়, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের খাটরা-বিলওয়াই মজুমদার বাড়ির বশির মজুমদার ও আছমা আক্তার দম্পতির শিশু সন্তান মিনা। সড়ক দুর্ঘটনায় মিনার বাবা বশির মজুমদারের একটি পা ভেঙে যায়। পরে রড লাগানো হয়। টাকার অভাবে সেই রড খুলতে পারছেন না তিনি। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি ও এনজিওর কাছে তার আরও ৫ লাখ টাকা ঋণ আছে। চিকিৎসা খরচ ও ঋণের টাকা জোগাতে ১৩ মাস বয়সী কন্যাশিশুকে সোমবার বিক্রি করে দেন বাবা-মা। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

পরে পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে শিশুকে উদ্ধার করে তার মা-বাবার কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এ সময় চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের পক্ষ থেকে শিশুটির পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়।

হাজীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিজাম বলেন, ঢাকার শাহজাহানপুর এলাকা থেকে ডিএমপি পুলিশের সহায়তায় রাতেই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। তবে ওই সময় শিশুকে কিনে নেওয়া ব্যক্তিরা বাসায় ছিলেন না। তাদের কাজের বুয়ার কাছ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

মা আছমা বেগম বলেন, মিনাকে ফিরে পেয়েছি। এখন আমি অনেক খুশি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর বিজয়ের গান গাইলেন সুনামগঞ্জের সাংবাদিক রাজু

হাজীগঞ্জে লাখ টাকায় বিক্রি করা শিশু ফির‌লো মা‌য়ের কো‌লে

আপডেট সময় : ০৪:১২:০১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৩ মার্চ ২০২২
সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : চিকিৎসার খরচ মেটা‌তে বিক্রি করে দেওয়া শিশু জোবায়েরা আক্তার মিনাকে অবশেষে মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল হাজীগঞ্জ পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসন। বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে মা-বাবার কোলে শিশুটিকে তুলে দেওয়া হয়।

Model Hospital

জানা যায়, চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের খাটরা-বিলওয়াই মজুমদার বাড়ির বশির মজুমদার ও আছমা আক্তার দম্পতির শিশু সন্তান মিনা। সড়ক দুর্ঘটনায় মিনার বাবা বশির মজুমদারের একটি পা ভেঙে যায়। পরে রড লাগানো হয়। টাকার অভাবে সেই রড খুলতে পারছেন না তিনি। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি ও এনজিওর কাছে তার আরও ৫ লাখ টাকা ঋণ আছে। চিকিৎসা খরচ ও ঋণের টাকা জোগাতে ১৩ মাস বয়সী কন্যাশিশুকে সোমবার বিক্রি করে দেন বাবা-মা। এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

পরে পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের সহায়তায় বুধবার (২৩ মার্চ) দুপুরে শিশুকে উদ্ধার করে তার মা-বাবার কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এ সময় চাঁদপুর জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশের পক্ষ থেকে শিশুটির পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকার চেক দেওয়া হয়।

হাজীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নিজাম বলেন, ঢাকার শাহজাহানপুর এলাকা থেকে ডিএমপি পুলিশের সহায়তায় রাতেই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। তবে ওই সময় শিশুকে কিনে নেওয়া ব্যক্তিরা বাসায় ছিলেন না। তাদের কাজের বুয়ার কাছ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

মা আছমা বেগম বলেন, মিনাকে ফিরে পেয়েছি। এখন আমি অনেক খুশি।