ঢাকা ০৩:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মতলব উত্তরে উজ্জ্বল মিয়াজী খুনের ঘটনায় ২০জনের নামে মামলা

মতলব উত্তর ব্যুরো : পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোবাইল ব্যবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজীকে কুপিয়ে হত্যা ঘটনায় ২০জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ১৫-২০জনকে আসামী করে মামলা করা হয়েছে।

Model Hospital

৭ মে শনিবার মতলব উত্তর থানায় উজ্জ্বল মিয়াজীর বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজী বিবাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করে। মামলা-০৬। তারিখ- ০৭ মে ২০২২ইং। ধারা- ৩০২/১১৪/৩৪ দণ্ডবিধি। নিহত উজ্জল মিয়াজী মুন্সিগঞ্জ জেলার কালিরচর এলাকার মৃত. হাজী আবদুল খালেক মিয়াজীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে বারোটার দিকে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর পূর্বপাড় ষাটনল পর্যটন কেন্দ্র এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কের মোবাইল ব্যাবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজী ঈদ পুনর্মিলনির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঘটনাস্থলে আসে । রাতে অনুষ্ঠান স্থল পরিদর্শন করতে গেলে চিহ্নিত বাবলা ওরফে উজ্জল খালাসী’সহ অজ্ঞাত ২৫/৩০ জন মিলে একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনি এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুলি করে উজ্জ্বল মিয়াজিকে হত্যা করে।

হত্যা কান্ডের খরব পেয়ে মতলব উত্তর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে প্রাথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

উজ্জ্বল মিয়াজীকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজী বলেন। তিনি হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসির দাবি করেন।

ওসি মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, মূলত আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই খুন হয়েছে উজ্জ্বল মিজি। গত বৃহস্পতিবার দিনগত রাত পৌনে ১টার দিকে বাবলা ডাকাতের নেতৃত্বে উজ্জ্বল মিজিকে কুপিয়ে যখম করা হয়। পরে আমরা খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করাই। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে উজ্জ্বল মিজি ইন্তেকাল করেন।

আগের সংবাদটি পড়ুন… মতলব উত্তরে দুই ডাকাত দলের সংঘর্ষ, গুলিতে সর্দার নিহত

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি আরও বলেন, উজ্জ্বল মিজি ২০০০ ব্যাচ নিয়ে শুক্রবার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করছিলেন ষাটনল পর্যটন কেন্দ্রে। রাতে ওই অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে আসে। ওখানে বাবলা ডাকাতের নেতৃত্বে প্রথমে ৮-১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়। তার সাথের লোকজন সব ছোটাছুটি করে দূরে সরে গেলে তাকে রামদা, দা ও কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে ফেলে চলে যায় বাবলা ডাকাত। পরে স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখে স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে থানায় খবর দেয়।

মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, নিহত উজ্জল মিয়াজীর বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ২০জনের নাম উল্লেখ পূর্বক আরো অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

প্রধানমন্ত্রীর বিজয়ের গান গাইলেন সুনামগঞ্জের সাংবাদিক রাজু

মতলব উত্তরে উজ্জ্বল মিয়াজী খুনের ঘটনায় ২০জনের নামে মামলা

আপডেট সময় : ১২:১২:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ মে ২০২২

মতলব উত্তর ব্যুরো : পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোবাইল ব্যবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজীকে কুপিয়ে হত্যা ঘটনায় ২০জনের নাম উল্লেখ করে আরো অজ্ঞাত ১৫-২০জনকে আসামী করে মামলা করা হয়েছে।

Model Hospital

৭ মে শনিবার মতলব উত্তর থানায় উজ্জ্বল মিয়াজীর বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজী বিবাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করে। মামলা-০৬। তারিখ- ০৭ মে ২০২২ইং। ধারা- ৩০২/১১৪/৩৪ দণ্ডবিধি। নিহত উজ্জল মিয়াজী মুন্সিগঞ্জ জেলার কালিরচর এলাকার মৃত. হাজী আবদুল খালেক মিয়াজীর ছেলে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে বারোটার দিকে চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা নদীর পূর্বপাড় ষাটনল পর্যটন কেন্দ্র এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কের মোবাইল ব্যাবসায়ী উজ্জ্বল মিয়াজী ঈদ পুনর্মিলনির অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঘটনাস্থলে আসে । রাতে অনুষ্ঠান স্থল পরিদর্শন করতে গেলে চিহ্নিত বাবলা ওরফে উজ্জল খালাসী’সহ অজ্ঞাত ২৫/৩০ জন মিলে একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনি এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুলি করে উজ্জ্বল মিয়াজিকে হত্যা করে।

হত্যা কান্ডের খরব পেয়ে মতলব উত্তর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে প্রাথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

উজ্জ্বল মিয়াজীকে পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজী বলেন। তিনি হামলাকারীদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসির দাবি করেন।

ওসি মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, মূলত আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই খুন হয়েছে উজ্জ্বল মিজি। গত বৃহস্পতিবার দিনগত রাত পৌনে ১টার দিকে বাবলা ডাকাতের নেতৃত্বে উজ্জ্বল মিজিকে কুপিয়ে যখম করা হয়। পরে আমরা খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করাই। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে উজ্জ্বল মিজি ইন্তেকাল করেন।

আগের সংবাদটি পড়ুন… মতলব উত্তরে দুই ডাকাত দলের সংঘর্ষ, গুলিতে সর্দার নিহত

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি আরও বলেন, উজ্জ্বল মিজি ২০০০ ব্যাচ নিয়ে শুক্রবার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করছিলেন ষাটনল পর্যটন কেন্দ্রে। রাতে ওই অনুষ্ঠানের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে আসে। ওখানে বাবলা ডাকাতের নেতৃত্বে প্রথমে ৮-১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়া হয়। তার সাথের লোকজন সব ছোটাছুটি করে দূরে সরে গেলে তাকে রামদা, দা ও কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে ফেলে চলে যায় বাবলা ডাকাত। পরে স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় দেখে স্থানীয় চেয়ারম্যানের মাধ্যমে থানায় খবর দেয়।

মতলব উত্তর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ শাহজাহান কামাল বলেন, নিহত উজ্জল মিয়াজীর বড় ভাই গোলাম কিবরিয়া মিয়াজীর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ২০জনের নাম উল্লেখ পূর্বক আরো অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য চেষ্টা চলছে।