ঢাকা ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে

কচুয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম জনসমর্থনে এগিয়ে

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কচুয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচন ঘিরে উপজেলা চেয়ারম্যান,ভাই চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীগন ভোটারদের কাছে গিয়ে দোয়া ও ভোট প্রার্থনা কামনা করছেন ।

Model Hospital

উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভা ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, সৎ-পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি হিসেবে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলমের এলাকায় রয়েছে ব্যপক গ্রহণ যোগ্যতা। বয়োজ্যেষ্ঠ, তরুণ ও নতুন ভোটারদের কাছেও সমান জনপ্রিয়। মাহবুব আলম একজন মানবিক মানুষ। যাকে বিশ্বাস করে ভোট দেওয়া যায়। তিনি জনগণের আমানতের প্রতিদান অবশ্যই দিবে।

সাচার ইউনিয়নের বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা তরুণ ভোটার, আর মাহবুব আলম ভাই তারুণ্যের প্রতীক, তাই আমার পরিবার স্বজন ও বন্ধুদের ভোট তিনিই পাবেন। নির্বাচিত হয়ে তিনি এলাকার উন্নয়নে অবদান রাখবেন। তাই অধিকাংশ ভোটার তাকেই ভোট দিবেন। এছাড়া তার বিকল্প কেউ নেই।

পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোঃ শাহজালাল সিকদার বলেন,পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাহবুব আলম বিপুল ভোটে বিজয় হয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে থেকে কচুয়ার ২৪৩ টি গ্রামের মানুষের পাশে থেকে সবসময় সেবা করে যাচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ কোন সমস্যা হলেই তাদেরকে সহযোগিতা করার জন্য সব সময় ছুটে যান মাহবুব আলম। মাহবুব আলম একজন কর্মীবান্ধব নেতা ও সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় ব্যক্তি। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মাহবুব আলম প্রার্থীতা ঘোষণা দেওয়ার পর পরেই সাধারণ মানুষ তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার জন্য নিজ নিজ এলাকায় প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইনশাল্লাহ মাহবুব আলম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।

কাউন্সিলর তাজুল ইসলাম রাজু জানান, মাহবুব আলমের পিতা মরহুম ইদ্রিস আলম বেপারী একাধিকবার কচুয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হয়ে সাধারণ মানুষের সেবা করে গেছেন। তার পরিবার অনেক আগে থেকেই প্রতিষ্ঠিত, চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তার ভাগ্য বদলাতে হবে না। তাকে নির্বাচিত করলে এলাকায় প্রকৃত উন্নয়ন হবে, মানুষ ভালো থাকবে।

চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও তাঁর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণের স্বপ্ন কচুয়া উপজেলায় বাস্তবায়ন করতে চাই।

কচুয়ার প্রাণপ্রিয় নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড.সেলিম মাহমুদ এমপির হাত ধরে সরকারের সকল উন্নয়নমূলক কাজ বাস্তবায়ন করে বাংলাদেশের অন্যতম একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবো। সাধারণ মানুষ আমার পক্ষে কাজ করছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা আমার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে আশা করি আমরা জয়ী হব। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।

ট্যাগস :

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে

কচুয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম জনসমর্থনে এগিয়ে

আপডেট সময় : ০৯:০২:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে কচুয়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচন ঘিরে উপজেলা চেয়ারম্যান,ভাই চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীগন ভোটারদের কাছে গিয়ে দোয়া ও ভোট প্রার্থনা কামনা করছেন ।

Model Hospital

উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভা ভোটারদের সাথে কথা বলে জানাগেছে, সৎ-পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি হিসেবে চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলমের এলাকায় রয়েছে ব্যপক গ্রহণ যোগ্যতা। বয়োজ্যেষ্ঠ, তরুণ ও নতুন ভোটারদের কাছেও সমান জনপ্রিয়। মাহবুব আলম একজন মানবিক মানুষ। যাকে বিশ্বাস করে ভোট দেওয়া যায়। তিনি জনগণের আমানতের প্রতিদান অবশ্যই দিবে।

সাচার ইউনিয়নের বাসিন্দা সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা তরুণ ভোটার, আর মাহবুব আলম ভাই তারুণ্যের প্রতীক, তাই আমার পরিবার স্বজন ও বন্ধুদের ভোট তিনিই পাবেন। নির্বাচিত হয়ে তিনি এলাকার উন্নয়নে অবদান রাখবেন। তাই অধিকাংশ ভোটার তাকেই ভোট দিবেন। এছাড়া তার বিকল্প কেউ নেই।

পশ্চিম সহদেবপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মোঃ শাহজালাল সিকদার বলেন,পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাহবুব আলম বিপুল ভোটে বিজয় হয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে থেকে কচুয়ার ২৪৩ টি গ্রামের মানুষের পাশে থেকে সবসময় সেবা করে যাচ্ছেন। দলীয় নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ কোন সমস্যা হলেই তাদেরকে সহযোগিতা করার জন্য সব সময় ছুটে যান মাহবুব আলম। মাহবুব আলম একজন কর্মীবান্ধব নেতা ও সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় ব্যক্তি। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মাহবুব আলম প্রার্থীতা ঘোষণা দেওয়ার পর পরেই সাধারণ মানুষ তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার জন্য নিজ নিজ এলাকায় প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইনশাল্লাহ মাহবুব আলম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।

কাউন্সিলর তাজুল ইসলাম রাজু জানান, মাহবুব আলমের পিতা মরহুম ইদ্রিস আলম বেপারী একাধিকবার কচুয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হয়ে সাধারণ মানুষের সেবা করে গেছেন। তার পরিবার অনেক আগে থেকেই প্রতিষ্ঠিত, চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে তার ভাগ্য বদলাতে হবে না। তাকে নির্বাচিত করলে এলাকায় প্রকৃত উন্নয়ন হবে, মানুষ ভালো থাকবে।

চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহবুব আলম বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও তাঁর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণের স্বপ্ন কচুয়া উপজেলায় বাস্তবায়ন করতে চাই।

কচুয়ার প্রাণপ্রিয় নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড.সেলিম মাহমুদ এমপির হাত ধরে সরকারের সকল উন্নয়নমূলক কাজ বাস্তবায়ন করে বাংলাদেশের অন্যতম একটি মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবো। সাধারণ মানুষ আমার পক্ষে কাজ করছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা আমার পক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে আশা করি আমরা জয়ী হব। জয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী।