ঢাকা ০৮:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা

চট্টগ্রামের অন্তর্গত লোহাগাড়া উপজেলাধীন একটি সুখ্যাত দ্বীনি শিক্ষা নিকেতন’র নাম ”লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা। এটি লোহাগাড়া উপজেলার পূর্বপাশে লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নে অবস্থিত। এর মাঠ ঘেষে (মাঠের পূর্ব পার্শে) “মধ্য লোহাগাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়”, অনতিদূরে উত্তরপূর্ব পাশে “শাহপীর উচ্চ বিদ্যালয়”, মোস্তফা বেগম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ ও উত্তর পশ্চিমে আলহাজ্ব মুস্তফিজুর রহমান কলেজ এর অবস্থান।

Model Hospital

স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক জনাব গোলাম রহমান কেরানী প্রথম জমি দান করে এলাকার শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিত্ব, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক জনাব আলহাজ্ব মাওলানা আহমদ কবির, জনাব মাওলানা লোকমান আহমদ, জনাব আসহাব মিয়া, জনাব ফরুক আহমদ, জনাব রবিউল্লাহ, জনাব আহমদ কবির, জনাব দানু মিয়া, জনাব মুহাম্মদ ইসমাইল, জনাব বদিউর রহমান, জনাব হাজী দানু মিয়া (রহ) প্রমূখকে সাথে নিয়ে ১৯৪৫ সালে এই দ্বীনি শিক্ষা নিকেতন প্রতিষ্ঠা করেন বলে জানা যায়। উল্লেখ্য, ১০ জুন ২০২১ ইংরেজি গভর্ণিং বডির সদস্যবৃন্দের সিদ্ধান্ত অনুসারে উপরোক্ত মহান ব্যক্তিবর্গই এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রাণপুরুষ স্বীকৃত, যাঁদের দান, ত্যাগ, ঘামঝরা শ্রম ও পরামর্শে লোহাগাড় ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার গোড়া পত্তন হয়।

লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড,ঢাকা কতৃক ১৯৫১ সালে দাখিল, ১৯৭০ সালে আলিম, ফাজিল এবং ১৯৭২ সালে বিজ্ঞানের মঞ্জুরী লাভ করে। এরপরে ২০০৬ সালে মাদ্রাসাটি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত হয়, এবং ২০১৬ সালে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্থানান্তরিত হয়। এই দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গরীব অসহায় ও এতীম ছাত্রদের জন্য ৩০ই জানুয়ারী ১৯৯২ সালে সমাজ সেবা অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম কতৃক সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ক্যাপিটেশন গ্রান্ট প্রাপ্ত “কর্ণেল (অবঃ) অলি আহমদ (বীর বিক্রম) এতিমখানা” নামে এতিমখানা চালু করা হয়। ১৯৬০ সালে শাহ মজিদিয়া হেফজখানা নামে হেফজখানা চালু হয়। অত্র মাদরাসার EIIN (Education Institute Identification Number) হচ্ছে ১০৪৫৭২। আর MPO নং হচ্ছে ২১৮০৪২৩০১ এবং মাদরাসা কোড হচ্ছে ১৭৫৪২।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বর্তমান পর্যন্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন যারা।
১.মাওলানা আবদুর রউফ রহ: (বাঁশখালী) (০১/১১/১৯৭৬—-৩০/০৯/১৯৭৭),
২. জনাব মাওলনা শফিক আহমদ রহ: (চুনতি) (০১/১০/১৯৭৭—-৩১/০৭/১৯৮০)
৩.মাওলানা মোস্তফিজুর রহমান (সাতকানিয়া) (০১/০৮/১৯৮০—-৩১/০১/১৯৮৯)
৪. মাওলানা মোস্তফা কামাল রহ: (লোহাগাড়া) (০১/০২/১৯৮৯—–৩১/০৮/১৯৯৪)
৫.মোহাম্মদ মোজতবা রহ: (চুনতি)(০৩/১০/১৯৯৪—–০৫/০৪/২০১০)
৬.এ, এ, এম ফাতহুল কাদীর (খুলনা) (২৬/০৯/২০১০—-১০/১০/২০১৫)
৭. মুহাম্মদ এনামুল করীম আনছারী (ভারপ্রাপ্ত) (সাতকানিয়া) (১১/১০/২০১৫—-১৯/১১/২০১৭)
৮. ড. মাওলানা মাহমুদুল হক ওসমানী (ভারপ্রাপ্ত) (লোহাগাড়া) (২০/১১/২০১৭—-৩১-১০/২০২২)
৯. ড. মুহাম্মদ আবদুল কাদের (০১/১১/২০২২ইং —বর্তমান)

•অত্র মাদরাসা গভর্ণিং বডির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন মাওলানা আহমদ ছফা ফারুকী। এর আগেও অনেকেই সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন যারা – জনাব আলহাজ্ব মুস্তফিজুর রহমান চৌধুরী, জনাব মুহাম্মদ আরমান বাবু রুমেল। বাকী দীর্ঘসময় ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এডিসি মহোদয়গণ দায়িত্বে ছিলেন। মূলতঃ তখনকার সময়ে শিক্ষা বঞ্চিত অত্র এলাকার সর্বসাধারণে জ্ঞানের আলো বিকিরণ করতেই তাঁদের এই মহৎ প্রয়াস। আলহামদুলিল্লাহ, বর্তমানে এলাকার সবশ্রেণির বাসিন্দা তাঁদের এই সৎকর্মের সুফল ভোগ করছে। আজ সত্যিই এই দ্বীনি কানন এলাকার ধনী, গরীব, দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের ছেলে-মেয়েদের পড়া-লেখার অন্যতম ঠিকানায় পরিণত হয়েছে। এখানে উপযুক্ত ওলামা ও যোগ্য নাগরিক তৈরী করতে বাংলা ছাড়াও আরবি, ইংরেজি ভাষা, তথ্য-প্রযুক্তির প্রশিক্ষণ ও উত্তম চরিত্র গঠনের উপর সমধিক গুরুত্বারোপ করা হয়।

এই প্রতিষ্ঠান থেকে ইতোমধ্যে অনেক খ্যাতিমান সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা, শিক্ষক, ওয়ায়েজ, দাঈ ইলাল্লাহ, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন সেক্টর কর্মরত অসংখ্য ব্যক্তিবর্গ স্ব-স্ব স্থানে আলো ছড়াচ্ছেন।

লেখক : ড. মুহাম্মদ আবদুল কাদের
অধ্যক্ষ, লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা। লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম।

ট্যাগস :

কনের পরিবারের ইচ্ছেপূরণে হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে এলেন লালমনিরহাটের মামুন

লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা

আপডেট সময় : ০৮:৪৫:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

চট্টগ্রামের অন্তর্গত লোহাগাড়া উপজেলাধীন একটি সুখ্যাত দ্বীনি শিক্ষা নিকেতন’র নাম ”লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা। এটি লোহাগাড়া উপজেলার পূর্বপাশে লোহাগাড়া সদর ইউনিয়নে অবস্থিত। এর মাঠ ঘেষে (মাঠের পূর্ব পার্শে) “মধ্য লোহাগাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়”, অনতিদূরে উত্তরপূর্ব পাশে “শাহপীর উচ্চ বিদ্যালয়”, মোস্তফা বেগম গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ ও উত্তর পশ্চিমে আলহাজ্ব মুস্তফিজুর রহমান কলেজ এর অবস্থান।

Model Hospital

স্থানীয় শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক জনাব গোলাম রহমান কেরানী প্রথম জমি দান করে এলাকার শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিত্ব, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক জনাব আলহাজ্ব মাওলানা আহমদ কবির, জনাব মাওলানা লোকমান আহমদ, জনাব আসহাব মিয়া, জনাব ফরুক আহমদ, জনাব রবিউল্লাহ, জনাব আহমদ কবির, জনাব দানু মিয়া, জনাব মুহাম্মদ ইসমাইল, জনাব বদিউর রহমান, জনাব হাজী দানু মিয়া (রহ) প্রমূখকে সাথে নিয়ে ১৯৪৫ সালে এই দ্বীনি শিক্ষা নিকেতন প্রতিষ্ঠা করেন বলে জানা যায়। উল্লেখ্য, ১০ জুন ২০২১ ইংরেজি গভর্ণিং বডির সদস্যবৃন্দের সিদ্ধান্ত অনুসারে উপরোক্ত মহান ব্যক্তিবর্গই এই প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রাণপুরুষ স্বীকৃত, যাঁদের দান, ত্যাগ, ঘামঝরা শ্রম ও পরামর্শে লোহাগাড় ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদ্রাসার গোড়া পত্তন হয়।

লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড,ঢাকা কতৃক ১৯৫১ সালে দাখিল, ১৯৭০ সালে আলিম, ফাজিল এবং ১৯৭২ সালে বিজ্ঞানের মঞ্জুরী লাভ করে। এরপরে ২০০৬ সালে মাদ্রাসাটি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত হয়, এবং ২০১৬ সালে ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে স্থানান্তরিত হয়। এই দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গরীব অসহায় ও এতীম ছাত্রদের জন্য ৩০ই জানুয়ারী ১৯৯২ সালে সমাজ সেবা অধিদপ্তর, চট্টগ্রাম কতৃক সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ক্যাপিটেশন গ্রান্ট প্রাপ্ত “কর্ণেল (অবঃ) অলি আহমদ (বীর বিক্রম) এতিমখানা” নামে এতিমখানা চালু করা হয়। ১৯৬০ সালে শাহ মজিদিয়া হেফজখানা নামে হেফজখানা চালু হয়। অত্র মাদরাসার EIIN (Education Institute Identification Number) হচ্ছে ১০৪৫৭২। আর MPO নং হচ্ছে ২১৮০৪২৩০১ এবং মাদরাসা কোড হচ্ছে ১৭৫৪২।

প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বর্তমান পর্যন্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালনে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন যারা।
১.মাওলানা আবদুর রউফ রহ: (বাঁশখালী) (০১/১১/১৯৭৬—-৩০/০৯/১৯৭৭),
২. জনাব মাওলনা শফিক আহমদ রহ: (চুনতি) (০১/১০/১৯৭৭—-৩১/০৭/১৯৮০)
৩.মাওলানা মোস্তফিজুর রহমান (সাতকানিয়া) (০১/০৮/১৯৮০—-৩১/০১/১৯৮৯)
৪. মাওলানা মোস্তফা কামাল রহ: (লোহাগাড়া) (০১/০২/১৯৮৯—–৩১/০৮/১৯৯৪)
৫.মোহাম্মদ মোজতবা রহ: (চুনতি)(০৩/১০/১৯৯৪—–০৫/০৪/২০১০)
৬.এ, এ, এম ফাতহুল কাদীর (খুলনা) (২৬/০৯/২০১০—-১০/১০/২০১৫)
৭. মুহাম্মদ এনামুল করীম আনছারী (ভারপ্রাপ্ত) (সাতকানিয়া) (১১/১০/২০১৫—-১৯/১১/২০১৭)
৮. ড. মাওলানা মাহমুদুল হক ওসমানী (ভারপ্রাপ্ত) (লোহাগাড়া) (২০/১১/২০১৭—-৩১-১০/২০২২)
৯. ড. মুহাম্মদ আবদুল কাদের (০১/১১/২০২২ইং —বর্তমান)

•অত্র মাদরাসা গভর্ণিং বডির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন মাওলানা আহমদ ছফা ফারুকী। এর আগেও অনেকেই সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন যারা – জনাব আলহাজ্ব মুস্তফিজুর রহমান চৌধুরী, জনাব মুহাম্মদ আরমান বাবু রুমেল। বাকী দীর্ঘসময় ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও এডিসি মহোদয়গণ দায়িত্বে ছিলেন। মূলতঃ তখনকার সময়ে শিক্ষা বঞ্চিত অত্র এলাকার সর্বসাধারণে জ্ঞানের আলো বিকিরণ করতেই তাঁদের এই মহৎ প্রয়াস। আলহামদুলিল্লাহ, বর্তমানে এলাকার সবশ্রেণির বাসিন্দা তাঁদের এই সৎকর্মের সুফল ভোগ করছে। আজ সত্যিই এই দ্বীনি কানন এলাকার ধনী, গরীব, দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের ছেলে-মেয়েদের পড়া-লেখার অন্যতম ঠিকানায় পরিণত হয়েছে। এখানে উপযুক্ত ওলামা ও যোগ্য নাগরিক তৈরী করতে বাংলা ছাড়াও আরবি, ইংরেজি ভাষা, তথ্য-প্রযুক্তির প্রশিক্ষণ ও উত্তম চরিত্র গঠনের উপর সমধিক গুরুত্বারোপ করা হয়।

এই প্রতিষ্ঠান থেকে ইতোমধ্যে অনেক খ্যাতিমান সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা, শিক্ষক, ওয়ায়েজ, দাঈ ইলাল্লাহ, রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন সেক্টর কর্মরত অসংখ্য ব্যক্তিবর্গ স্ব-স্ব স্থানে আলো ছড়াচ্ছেন।

লেখক : ড. মুহাম্মদ আবদুল কাদের
অধ্যক্ষ, লোহাগাড়া ইসলামিয়া ফাযিল (ডিগ্রি) মাদরাসা। লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম।